বুধবার, ২১ এপ্রিল ২০২১, ১১:৪৯ অপরাহ্ন

শিরোনাম:
রাজশাহীতে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুরের বিরুদ্ধে মামলা করলেন যুবলীগ নেতা হেফাজতের আরও দুই শীর্ষস্থানীয় নেতা গ্রেপ্তার মাছ ছিনতাই : থানায় অভিযোগ ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে ২০১৩ সালের ৫ মে শাপলা ট্রাজেডির মামলায় আল্লামা খুরশেদ আলম কাসেমি গ্রেফতার! ২০১৩ সালের ৫ ই মের মামলায় মুফতি সাখাওয়াত ও মাওলানা আফেন্দির ২১ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর মাওলানা আফেন্দি ও মুফতি সাখাওয়াত হোসেন রাজিকে ১০ দিনের রিমান্ড! মাওলানা আফেন্দি ও মুফতি সাখাওয়াত হোসেন রাজিকে ১০ দিনের রিমান্ড! আট বছর আগের মামলায় ৭ দিনের রিমান্ডে হেফাজত নেতা কোরবান আলী আরো এক মামলায় মাওলানা রফিকুল ইসলামের একদিনের রিমান্ডে লকডাউনকে ‘বৃদ্ধাঙ্গুলি’ দেখিয়ে অষ্টমীর স্নানে মানুষের ঢল

ফলাফল যা-ই হোক মেনে নেবেন আতিকুল

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥

ভোটের ফলাফল যা-ই হোক সেটা মেনে নেবেন বলে জানিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়রপ্রার্থী আতিকুল ইসলাম। শনিবার (১ ফেব্রুয়ারি) উত্তরার নওয়াব হাবিবুল্লাহ মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে নিজের ভোট দিয়ে সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

ভোটের ফলাফল যা-ই হোক তা মেনে নেবেন উল্লেখ করে আতিকুল ইসলাম বলেন, আমার প্রতিপক্ষ যদি জিতে যান তাহলে গত নয় মাস মেয়র থাকাকালীন আমার যে অভিজ্ঞতা তা তার সাথে শেয়ার করব। আশা করি, উনি হারলেও আমার প্রতি সহযোগিতা অব্যাহত রাখবেন।

তিনি বলেন, ‘আমি ভোটে জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী। ইনশাল্লাহ জয় আমাদের হবেই। কারণ, আমরা যে কাজ করেছি, উন্নয়ন করেছি, ভবিষ্যতেও করব। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মার্কা ছিল নৌকা। নৌকা আমাদের স্বাধীনতা দিয়েছে, লাল সবুজ পতাকা দিয়েছে। সেই নৌকার প্রার্থী হিসেবে আমি ভোট করছি। আমি জনগণকে কথা দিচ্ছি, সাধ্যমতো চেষ্টা করব- সবাই মিলে একটি আধুনিক সুস্থ, সচল ঢাকা দেয়ার জন্য।

ইভিএমে ভোট দিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করে আতিকুল ইসলাম বলেন, আমি চেয়েছিলাম, এখানকার প্রথম ভোটটি দিতে। আমি সেটা পেরেছি। প্রথম ভোট দিয়েছি। ভোট দেয়ার সাথে সাথে কনফার্ম হয়েছে বলে জানানো হয়। কোনো কালি লাগেনি হাতে। ব্যাপারটা আমার খুব ভাল লেগেছে।

এদিকে, কেন্দ্রে ঢুকে শুরুতে কোন বুথে ভোট দেবেন তা খুঁজে পাচ্ছিলেন না আতিকুল ইসলাম। প্রথমে তিনি স্কুল ভবনের চার তলায় উঠে যান। পরে দোতলার একটি কক্ষ এবং তিনতলার ৫ নম্বর কক্ষ ঘুরে আসেন আতিক। এরপর তৃতীয় তলার ৩ নম্বর কক্ষই তার ভোটিং বুথ হিসেবে নিশ্চিত হলে সেখানেই ভোট দেন তিনি।

প্রথমে ইভিএম মেশিনে আঙুলের ছাপ দিয়ে নিজের পরিচয় নিশ্চিত করেন আতিকুল ইসলাম। এরপর পাশেই স্থাপিত গোপন বুথে গিয়ে ইভিএম মেশিনের ব্যালট ইউনিট থেকে বোতাম চেপে ভোট দেন আতিক।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved ©2020 jubokantho24.com
Website maintained by Masum Billah