রবিবার, ১৬ মে ২০২১, ১২:১৫ অপরাহ্ন

জুমার দিনের যে আমলে এক বছরের নফল নামায ও রোযার সওয়াব

ওমায়ের আহসান ।।

জুমার দিন সপ্তাহের মহিমান্বিত দিন। এদিনকে সাইয়িদুল আইয়াম বা সমস্ত দিনের সর্দার বলা হয়। এ ফযিলতপূর্ণ দিনটির সঙ্গে জড়িয়ে আছে বহু আহকাম ও ঐতিহাসিক ঘটনা। কোরআন মাজীদে এ দিন সম্পর্কে আল্লাহ তাআলার বিশেষ নির্দেশনা বর্ণিত হয়েছে।

আল্লাহ তাআলা ইরশাদ করেন,

يَا أَيُّهَا الَّذِينَ آمَنُوا إِذَا نُودِيَ لِلصَّلَاةِ مِنْ يَوْمِ الْجُمُعَةِ فَاسْعَوْا إِلَى ذِكْرِ اللَّهِ وَذَرُوا الْبَيْعَ ذَلِكُمْ خَيْرٌ لَكُمْ إِنْ كُنْتُمْ تَعْلَمُونَ۔ فَإِذَا قُضِيَتِ الصَّلَاةُ فَانْتَشِرُوا فِي الْأَرْضِ وَابْتَغُوا مِنْ فَضْلِ اللَّهِ وَاذْكُرُوا اللَّهَ كَثِيرًا لَعَلَّكُمْ تُفْلِحُونَ

অর্থ: মুমিনগণ, জুমার দিনে যখন নামাজের আজান দেয়া হয়, তখন তোমরা আল্লাহর স্মরণে ধাবিত হও এবং বেচাকেনা বন্ধ করে দাও। এটা তোমাদের জন্য উত্তম যদি তোমরা বোঝো। অতঃপর নামাজ শেষে পৃথিবীতে ছড়িয়ে পড় এবং আল্লাহ তায়ালার অনুগ্রহের সন্ধান কর ও আল্লাহকে অধিক স্মরণ করো, যাতে তোমরা সফলকাম হও।’ (সুরা জুমআ, আয়াত ৯-১০)

জুমার দিন যে আমলে এক বছরের নফল নামায ও রোযার সওয়াব

জুমার দিনে এমন একাধিক আমল রয়েছে, যা পালন করা সহজ, কিন্তু সওয়াব অনেক বেশি। হাদীস শরীফে বর্ণিত হয়েছে, প্রিয়নবীজি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ইরশাদ করেছেন,

من غسل يوم الجمعة واغتسل،   ثم بكر وابتكر، ومشى ولم يركب، ودنا من الإمام واستمع، ولم يلغ كان له بكل خطوة عمل سنة أجر صيامها وقيامها

অর্থ: যে ব্যক্তি জুমার দিন গোসল করল, আগে আগে মসজিদে গেল, বাহনে না চড়ে পায়ে হেঁটে মসজিদে গেল, ইমামের কাছাকাছি বসল, মনোযোগ দিয়ে খুতবা শুনল, কোনো অনর্থক কথা বা কাজ করল না, আল্লাহ তায়ালা তাকে প্রতি কদমে এক বছরের নফল রোযা ও  সওয়াব দান করবেন। (আবু দাউদ, হাদীস ৩৪৫,৩৪৬; তিরমিযী, ৪৯৬)

 

ইসলাম টাইমসের সৌজন্যে

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved ©2020 jubokantho24.com
Website maintained by Masum Billah