শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ০৭:২৬ অপরাহ্ন

শিরোনাম:

আলোকিত রমযান নিয়ে কথকতা

ইলিয়াস বিন মাজহার
মানবজীবনের প্রত্যাশা ও মহাপ্রাপ্তির কেন্দ্রবিন্দু— তার মুনিব। যে মানব তার মুনিবকে পেয়ে যায়, যে সৃষ্টি পারে তার স্রষ্টাকে একজীবনের সবচে’ আপন করে নিতে— প্রাপ্তির খাতায় তার আর কোনও শূন্যতা থাকে না। থাকার নয়। বাকি থাকে না আর কোনও প্রত্যাশাও। অপরপিঠে— পার্থিব সব প্রাপ্তি দিয়ে কেউ যদি জীবনের খাতা পূর্ণ করে ফেলে, কিন্তু সে খাতায় জীবনের উদ্দিষ্ট প্রাপ্তিটাই না থাকে, তবে সে জীবন ও জীবনের খাতা পুরোটাই বৃথা; উত্তপ্তোষার মরুভূমি বই কিছুই না। সৃষ্টিজীব হয়ে একজীবনে যদি নিজের স্রষ্টাকেই আপন করে না পাই, ভালোবাসার পূর্ণটা যদি তাঁকে না-ই দিতে পারি, তবে মানুষ হয়ে সৃষ্টিসমাজে যেন একটি কীটের জীবন যাপন করছি। সেই রুহের জগত, পিতার পৃষ্ঠদেশ, মায়ের গর্ভ অতঃপর এই পার্থিব জগতে এসে কেটে গেল দীর্গকাল। অথচ এখনও প্রাপ্তির খাতায় তাঁকে লেখাতে পারিনি। অথচ তিনি নিজেই বারবার তাঁকে পাওয়ার সুবর্ণ সুযোগ দেন। সহজ করে দেন পথ। তবুও আমি ভুলে রই। তাঁকে পাওয়ার সুবর্ণ সুযোগের মাঝে মাহে রমযান অনন্য। এই মাস তাঁর নৈকট্য লাভের মাস। তাঁরই দান— একটি অশেষ নেয়ামত।
সারাজীবনের কালিমাগুলো সম্মার্জনের মতো করে মুছে নেওয়ার সুযোগ পুরো বছরের তুলনায় এ মাসে আরও কয়েকগুণ বেশি। তাই তো এ মাস মুমিনের বসন্তপ্রতীম। অল্প অল্প আমলেও এ মাসে ছোঁয়া যায় সওয়াবের অস্পৃশ্য আকাশ। কালিমাযুক্ত জীবনকে ধুয়েমুছে নিয়ে যাওয়া যায় মুনিবের খুব নিকটে। রমযান নিয়ে যত কথা— ‘যুগে যুগে রোযা, ইতিহাসের আলোকে রমযান, চিকিৎসাবিজ্ঞানীদের দৃষ্টিতে রোযা, আত্মশুদ্ধির মাস রমযান, তাকওয়া অর্জনের চাবিকাঠি’সহ বিভিন্ন শিরোনামে ‘আলোকিত রমযান’ গ্রন্থটিতে সন্নিবেশিত হয়েছে রমযানের গুরুত্ব, তাৎপর্য, ফজিলত, আমল ও রমযানের পুরস্কার বিষয়ক চমকপ্রদ সব প্রবন্ধ। আলোকিত রমযান গ্রন্থ প্রণেতা শুধু রমযান মাসের আলোচনাতেই সীমাবদ্ধ থাকেননি। রমযানপূর্ব মাস কয়েক— রজব, সাবান ও তাতে রমযানের প্রস্তুতি নিয়েও আলোচনা করেছেন ‘সমাগত সাবান’ প্রবন্ধটিতে। এমনকি রমযান প্রাসঙ্গিক ‘ইতিকাফের গুরুত্ব ও ফজিলত ও ইতিকাফ করবেন যেভাবে’ প্রবন্ধদ্বয়সহ যাকাত, ঈদুল ফিতর প্রভৃতি বিষয়েও লিখেছেন তার অনিন্দ্য লেখনশৈলী দ্বারা। ‘আলোকিত রমযান’ গ্রন্থটি রচনা করেছেন সুখের নীড় ও মাযহাব গ্রন্থ প্রণেতা, প্রতিভাসম্পাদক, বহু পত্র পত্রিকার নিয়মিত লেখক ও জামিআতুস সুফফাহ আল ইসলামিয়া গাজীপুরের স্বনামধন্য মুহাদ্দিস উস্তাযজি মুহতারাম মুফতি উবায়দুল হক খান দা. বা.।
আমার দেখা একজন পরিপাটি ও রুচিশীল মানুষ। বইয়ের জগতে গদবাধা নিয়মের উল্টোস্রোত আমি তাঁর কাছেই দেখেছি। শুধু বই ছাপা নয়, কতটা যত্নশীল হতে হয় লেখার প্রতি ও বইপ্রাসঙ্গিক যাবতীয় বিষয়ের প্রতি, সেটা তাঁর থেকেই জেনেছি। তিনি ব্যক্তিজীবনে যেমন পরিপাটি, গোছালো ও পূর্ণ রুচিশীল ব্যক্তিত্ব, তেমনই লেখা ও বইয়েও তার নিদর্শন প্রতীয়-মান। আলোকিত রমযান গ্রন্থটি মুফতি উবায়দুল হক খান রচিত তৃতীয় মৌলিক গ্রন্থ। লেখক বইটিতে মৌলিক প্রবন্ধের সাথে যুক্ত করেছেন শায়খুল ইসলাম মুফতি তাকী উসমানী হাফিযাহুল্লাহর রমযান বিষয়ক আলোচনার করা তাঁর অনুবাদও। সমাপ্তিতে বলব— পাঠক বইটিতে কয়েকরকম স্বাদ আস্বাদন করতে পারবেন। গ্রহণ করতে পারবেন রমযান ও রমযানের প্রাসঙ্গিক বিষয়গুলোরও ধারণা। আমল ও ফজিলত জেনে নিয়ে নিজেকে এগিয়ে নিতে পারবে আরও বহুদূর। লেখক পাঠক ও শুভাকাঙ্ক্ষী সকলের জন্য আল্লাহ তাআলার নৈকট্যলাভের আশায়…।

 

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved ©2020 jubokantho24.com
Design & Developed BY Masum Billah