মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল ২০২১, ০৮:১৩ অপরাহ্ন

শিরোনাম:
রাবেতাতুল ওয়ায়েজীন বাংলাদেশ মাওলানা মামুনুল হকের পাশে থাকবে। গ্রেফতার ঝুঁকিতে হেফাজত নেতৃবৃন্দ : করণীয় কি? সৈয়দ শামছুল হুদা মসজিদে তারাবির নামাজে ২০ জনের বেশি নয় স্বাস্থ্যবিধি মেনে কুরআন নাজিলের মাসে হিফজুল কুরআন ও ক্বেরাত বিভাগ খুলে দিন -আল্লামা মুফতি রুহুল আমীন ২৯শে মে জাতীয় ওলামা মাশায়েখ সম্মেলন গণগ্রেফতার ও হয়রানী বন্ধ করুন: মামুনুল হক মানহানী ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করতে পারবেন: সুপ্রিমকোর্ট আইনজী ৩১৭ বছরের পুরনো মসজিদ উদ্বোধন করলেন আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী পাথরের ট্রাকে ২কোটি টাকার হেরোইন উদ্ধার – আটক২ সাংসদ বেনজীর আহমেদ করোনায় আক্রান্ত সাভারে জোর করে বের করে দেয়া ভাড়াটিয়াদের রক্ষা করলো পুলিশ

মোদির মতো এত বড় মিথ্যাবাদী আমি জীবনেও দেখিনি : মমতা

যুবকণ্ঠ ডেস্ক;

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুরে এক নির্বাচনী জনসভায় তৃণমূল নেত্রী মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কঠোর সমালোচনা করে বলেছেন, ‘মোদির মতো এত বড় মিথ্যাবাদী আমি জীবনেও দেখিনি। প্রধানমন্ত্রীর চেয়ারটাকে আগে সম্মান করতাম। এখন আর করি না।’ বাঁকুড়ার জনসভায় এ কথা বলেন মমতা।
এর আগে পশ্চিমবঙ্গের মেদিনীপুরের কাঁথিতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জিকে আক্রমণ করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেছেন, মানুষের প্রয়োজনে আপনাকে পাশে পাওয়া যায় না। আর ভোটের সময় ‘দুয়ারে সরকার’ গড়ছেন। ভোটের মাধ্যমেই পশ্চিমবঙ্গের মানুষ আপনাকে ‘দরজা’ দেখিয়ে দেবে। গতকাল বুধবার (২৪ মার্চ) পশ্চিমবঙ্গের কাঁথির জনসভায় তিনি এ কথা বলেন।
গতকাল এক প্রচারণায় অংশ নিয়ে মোদি মমতার সমালোচনা করে বলেন, যখন প্রয়োজন, তখন দিদি দেখেন না। কিন্তু ভোট আসলে বলেন, দুয়ারে সরকার। এটাই আপনার খেলা। এই রাজ্যের শিশুরা পর্যন্ত আপনার খেলা বুঝে গেছে। এই জন্যই ২ মে রাজ্যবাসী আপনাকে দুয়ার দেখিয়ে দেবে।
তিনি আরও বলেন, আম্ফান ঝড়ে পশ্চিমবঙ্গের বহু মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিলেন। বিজেপি সরকার তাদের জন্য যে টাকা পাঠিয়েছিল, তা পশ্চিমবঙ্গের মানুষ পায়নি। সাধারণ মানুষ এখনো ভাঙাচোরা ঘরে বসবাস করছেন।
অন্যদিকে মমতা বলেন, বিজেপি রাতের অন্ধকারে টাকা বিলি করছে। যারা টাকা বিলি করছেন, তাদের হাতেনাতে ধরিয়ে দিতে পারলেই পুরস্কার স্বরূপ চাকরি দেওয়া হবে।
এছাড়াও এদিন মুখ্যমন্ত্রী বিজেপির ইশতেহারের তীব্র সমালোচনা করেছেন। তিনি বলেছেন, “নির্বাচন এলেই তারা এখন বাংলায় সপ্তম পে-কমিশন চালানোর কথা বলছে। কিন্তু এদিকে খোঁজ নিয়ে দেখুন যে ত্রিপুরাতে প্রফিডেন্ট ফান্ড বন্ধ করে দিয়েছে। আসামে এনআরসির নামে লোকজনকে বাড়ি থেকে উৎখাত করা হচ্ছে। ডিটেনশন ক্যাম্প তৈরি হচ্ছে। মিথ্যাবাদীর দল বিজেপি। ভুলভাল প্রতিশ্রুতি দিয়ে নির্বাচনের আগে বাংলার মানুষকে বোকা বানাতে চাইছে।”

সূত্র : এনডিটিভি, আনন্দবাজার

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved ©2020 jubokantho24.com
Design & Developed BY Masum Billah