বুধবার, ১২ মে ২০২১, ০২:৩১ পূর্বাহ্ন

সাভারে এবার ভাইরাল রিকশাচালককে মারধরের ভিডিও

 

সাভারে ফুডপান্ডার এক কর্মীকে মারধর কান্ডের আলোচনার রেশ কাটতে না কাটতেই এবার এক রিকশাচালককে ডাকে সাড়া না দেওয়ার কারনে মারধর করলেন ফার্মেসি ব্যবসায়ী। এরইমধ্যে এ ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে।

রিকশাচালককে মারধরকারী ফার্মেসি ব্যবসায়ীর নাম মোফাজ্জল হোসেন। তিনি সাভার থানা রোডের সবুজ ফার্মেসির মালিক।

ঘটনাটি ঘটেছে রোববার (০২ মে) রাত সাড়ে ১০টার দিকে সাভারের থানা রোডের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সামনের রাস্তায়। এসময় পাশে থাকা এক ব্যক্তি ঘটনার ভিডিও ধারণ করে ফেসবুকে আপ্লোড করেন আর এতেই সমালোচনার ঝড় উঠে।

ঘটনার পর রিকশাচালকের সন্ধান করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি। তবে তিনি থানা রোডের আশপাশেই থাকেন বলে জানা গেছে।

ফেসবুকে আপ্লোড করা ভিডিওটিতে দেখা যায়, রিকশাচালককে তার রিকশা থেকে নামিয়ে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করছেন তোফাজ্জল হোসেন। পরে তাকে লাথি দেন। এবং তার রিকশার চাকার হাওয়া ছেড়ে দেয়।

এ সময় রিকশাচালক বলেন, ‘আমার বাসায় ঝগড়া লাগছে ভাই; তাড়াতাড়ি যাইতে হইবো।’ পাশ থেকে রিকশাওয়ালাকে আরেকজন বলছেন, ‘তোরে তো যাইবারই কইতাছি।’

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, গতব্যে যেতে রিকশাচালককে ডাক দেন ওই ফার্মেসি মালিক। কিন্তু ডাকে সাড়া দিয়ে চলে যাচ্ছিলেন রিকশাচালক। এ সময় তাকে থামিয়ে রাস্তায় ফেলে মারধর করেন ফার্মেসির মালিক ও তার সহযোগীরা।

এব্যাপারে ফার্মেসি ব্যবসায়ী তোফাজ্জল হোসেনকে ফোন করে মারধরের ঘটনার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘তাকে ডেকেছি, কিন্তু কথা শোনেনি। এজন্য মারধর করা হয়েছে।’

ডাকে সাড়া না দেওয়ায় এভাবে একজন রিকশাচালককে মারধর করা ঠিক হয়েছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘না এভাবে মারধর করা ঠিক হয়নি।’

আপনার সঙ্গে তাকে মারধরকারী অন্যরা কারা ছিলেন সেটি জানতে চাইলে তোফাজ্জল হোসেন বলেন, ‘আমার পরিচিত বন্ধু-বান্ধব। ওই সময় কে কি করল সেটি খেয়াল করিনি।’

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি সাভারে ফুডপান্ডার এক কর্মীকে মারধরের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে, এ ঘটনায় অভিযুক্ত দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডাঃ এনামুর রহমানের বরখাস্ত হওয়া ব্যক্তিগত সহকারী (পিও) সুজন গ্রেফতার হয়েছেন।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved ©2020 jubokantho24.com
Website maintained by Masum Billah