রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ০৩:৫১ অপরাহ্ন

করোনা উপেক্ষা করে ২০০ টাকার নোট নিতে ভিড়

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত একজনের মৃত্যু হয়েছে। বিশ্বব্যাপী এ মহামারির প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে জনসমাগম নিষেধ করা হচ্ছে। তবে এসব উপেক্ষা করে ২০০ টাকার নোট নিতে ভিড় করেছে মানুষ। বুধবার (১৮ মার্চ) মতিঝিলে বাংলাদেশ ব্যাংকের নিচ তলায় দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে ২০০ টাকার নোট সংগ্রহ করতে দেখা যায়।

এর আগে মুবিজববর্ষ উপলক্ষে মঙ্গলবার (১৭ মার্চ) বিকেলে নতুন ২০০ টাকার নোট ও স্মারক মুদ্রা উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গণভবনে আনুষ্ঠানিকভাবে এ নোট ও স্মারক মুদ্রা উদ্বোধন করা হয়।

পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী বুধবার (১৮ মার্চ) থেকে বাংলাদেশ ব্যাংকের মতিঝিল অফিসসহ অন্যান্য শাখায় ২০০ টাকার নোট বিনিময় শুরু হয়েছে।

এদিকে নতুন নোট নিতে প্রথম দিন সাধারণ মানুষদের হুমড়ি খেয়ে পাড়তে দেখা গেছে। একজন গ্রাহককে ২০০ টাকার নোট প্রথম পর্যায়ে সর্বোচ্চ ১০টি করে দেয়া হচ্ছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকে নতুন নোটের জন্য লাইনে দাঁড়ানো আরিফুল ইসলাম বলেন, বিভিন্ন পত্রিকায় দেখলাম নতুন ২০০ টাকার নোট চালু হয়েছে। আজ থেকে বাংলাদেশ ব্যাংকে পাওয়া যাবে। মতিঝিল একটি কাজে এসেছিলাম। এ সুযোগে এখানে আসলাম নতুন নোট নিতে। ১০টি নোট দিয়েছে। নতুন নোট যত আগে হাতে আসে তত ভালো লাগে। পরে হয়তো অনেক পাবো কিন্তু এখন হাতে পাওয়ার আনন্দ একটু অন্য রকম।

এদিকে বাংলাদেশ ব্যাংকের বাইরে ২০০ টাকার নতুন নোট বিক্রি করতে দেখা যায়। তবে এজন্য গ্রহককে বাড়তি ২০ থেকে ৩০ টাকা বেশি দিতে হচ্ছে।

এর আগে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ এবং ২০২০-২১ সালে মুজিববর্ষ উদযাপন উপলক্ষে বাজারে ১০০ টাকা মূল্যমান স্মারক নোট, প্রথমবারের মতো ২০০ টাকা মূল্যমান প্রচলনযোগ্য স্মারক ব্যাংক নোট, ১০০ টাকা অভিহিত মূল্যের স্বর্ণ ও রৌপ্য স্মারক মুদ্রা ছাড়ার ঘোষণা দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক। ডিজাইন হিসেবে মুদ্রিত রয়েছে।

এছাড়া নোটের ওপরের অংশে ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জন্মশতবর্ষ ‘১৯২০-২০২০’, ওপরে ডান দিকে কোনায় ইংরেজিতে মূল্যমান ‘২০০’ ও ডান দিকে নিচে কোনায় বাংলায় মূল্যমান ‘২০০’ লেখা রয়েছে। নোটের পেছন ভাগে ডান দিকে গ্রামবাংলার বহমান নদী ও নদীর পাড়ের দৃশ্য (নদীর বুকে নৌকা, পারে পাটক্ষেত ও নৌকায় পাট বোঝাইয়ের দৃশ্য) এবং এর বাম পাশে বঙ্গবন্ধুর যুক্তফ্রন্টের মন্ত্রী থাকাকালীন একটি ছবি মুদ্রিত রয়েছে। নোটের উপরিভাগে ইংরেজিতে ‘Father of the Nation Bangabandhu Sheikh Mujibur Rahman Centenary 1920-2020’ এবং নিচে বাম দিকে কোনায় ‘Birth Centenary’ লেখা রয়েছে। নোটের ওপরে বাম কোণে বাংলায় মূল্যমান ‘২০০’ ও ডান কোণে ‘বাংলাদেশ ব্যাংকের মনোগ্রাম’ এবং নিচে ডান দিকের কোণে ইংরেজিতে মূল্যমান ‘২০০’ লেখা রয়েছে।

১০০ টাকা মূল্যমান স্মারক নোটটির জন্য পৃথকভাবে বাংলা ও ইংরেজি লিটারেচার সংবলিত ফোল্ডার প্রস্তুত করা হয়েছে। ফোল্ডার ছাড়া শুধু খামসহ স্মারক নোটটির মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১০০ টাকা এবং ফোল্ডার ও খামসহ স্মারক নোটটির মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১৫০ টাকা। এছাড়া স্বর্ণ স্মারক মুদ্রাটির মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে স্মারক বাক্সসহ ৫৩ হাজার টাকা এবং রৌপ্য স্মারক মুদ্রাটির মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে স্মারক বাক্সসহ ৩ হাজার ৫০০ টাকা।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved ©2020 jubokantho24.com
Website maintained by Masum Billah