শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০, ০৯:৫০ পূর্বাহ্ন

শিরোনামঃ
ফ্রান্স : অসভ্যতার পৃষ্ঠপোষক আজকের বিক্ষোভ : কিছু পর্যবেক্ষণ সৈয়দ শামছুল হুদা অপরাধীর কাছে গিয়ে নরম সুরে বুঝাতে হব, সন্ত্রাসী প্রদ্ধতিতে প্রতিবাদ নয় : ফরীদুদ্দীন মাসউদ ফ্রান্স সারাবিশ্বের সামনে প্রকাশিত ক্ষমা চাইতে হবে না হয় জিহাদ ঘোষনা করলাম। মাওলানা আনিসুল হক। নিউইয়র্কে সংবর্ধিত হলেন হাফেজ কারী নাজমুল হাসান ফ্রান্সের দূতাবাস বন্ধ ও কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করতে হবে-আল্লামা নূর হোছাইন কাসেমী হেফাজতের বিক্ষোভ সমাবেশ সফল করায় দেশবাসীর প্রতি আল্লামা বাবুনগরীর অভিনন্দন ভারতের ম্যাপ থেকে কাশ্মীর বাদ দিল সৌদি আরব ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোকে মুসলিম বিশ্বের কাছে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে -জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ বিক্ষোভে উত্তাল ঢাকা: ফ্রান্সের সঙ্গে সব সম্পর্ক ছিন্নের দাবি

৩৭৯ আইসিইউ’র মধ্যে খালি ২০০

দেশে দিন দিন বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। বাড়ছে মুমূর্ষু রোগীর সংখ্যাও, যাদের চিকিৎসায় প্রয়োজন আইসিইউ বা ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিট। অথচ লাখো রোগীর তুলনায় দেশের আইসিইউ শয্যা খুবই কম। ঘাটতি রয়েছে অক্সিজেন সিলিন্ডারেরও। অথচ এমন সময় পর্যাপ্ত আইসিইউ শয্যা থাকার দাবি স্বাস্থ্য অধিদফতরের। তারা বলছেন, ৩৭৯টি আইসিইউর মধ্যে খালি ২০০টি!

করোনায় আক্রান্ত হয়ে একটি আইসিইউর জন্য হাসপাতাল থেকে হাসপাতালে ঘুরে হয়রান হওয়ার খবর বিভিন্ন সময় প্রকাশ হয়েছে গণমাধ্যমে। সেইসঙ্গে কোভিড হাসপাতালগুলোতে পর্যাপ্ত অক্সিজেন সুবিধা না থাকার খবরও পাওয়া যাচ্ছে।

দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ৩০ হাজার। জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের মতে ৫ শতাংশ রোগীর জন্য ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিট বা আইসিইউ সুবিধা প্রস্তুত রাখা উচিত। সে হিসেবে বর্তমানে দেশের হাসপাতালগুলোতে সাড়ে ৬ হাজার আইসিইউ শয্যা থাকার কথা। কিন্তু সরকারি-বেসরকারি হাসপাতাল মিলিয়ে আছে মাত্র ৩৭৯টি।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হাসপাতাল বিভাগের পরিচালক আমিনুল ইসলাম বলেন, ডেডিকেটেড আইসিইউ সারা দেশে প্রায় ৩৭৯টি। পাশাপাশি আরও বাড়ানোর কাজ করছি।

২৬ জুন পর্যন্ত ঢাকা মহানগরীসহ এ বিভাগের ২০টি নির্ধারিত কোভিড হাসপাতালে ১৫টি আইসিইউ শয্যা। চট্টগ্রামের আটটি কোভিড হাসপাতালে আইসিইউ আছে মাত্র চারটিতে। ময়মনসিংহ বিভাগে নেই একটিতেও। রাজশাহীতে মাত্র ২৩টি আইসিইইউ বেড, রংপুরে ২০টি, খুলনায় ১৮টি, বরিশালে ১০টি ও সিলেটে ১০টি আইসিইউ বেড।

এতো বিশাল ঘাটতির পরও আশ্চর্যজনকভাবে স্বাস্থ্য অধিদফতরের দাবি পর্যাপ্ত আইসিইউ থাকার।

এমন অবস্থায় উদ্বেগ জানিয়ে জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, আক্রান্ত রোগীর অনুপাতে দেশে তীব্র সংকট রয়েছে আইসিইউ শয্যার। শুধু কোভিড রোগী নয়, স্বাভাবিক রোগীদের জন্যও অপর্যাপ্ত আইসিইউ। তাই সংশ্লিষ্টদের দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার আহ্বান তাদের।

ডা. বে-নজির বলেন, করোনার পূর্বে যে আইসিইউয়ের চাহিদা সেটাই পূরণ করতে পারতো না। তাই করোনার সময়ে আইসিউয়ের চাহিদা পূরণ করা আসলেই কষ্টসাধ্য।

পাশাপাশি হাসপাতালগুলোতে পর্যাপ্ত অক্সিজেন সিলিন্ডার নিশ্চিতের তাগিদও দিয়েছেন তারা।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের আইসিইউ বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক একেএম আখতারুজ্জামান বলেন, এখন সময় আসছে, বাংলাদেশের যত স্বাস্থ্য কাঠামো আছে, যত আইসিইউ বেড আছে সবগুলোকে একটি সিঙ্গেল কমান্ডে নিয়ে আসেন।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের সবশেষ তথ্যানুযায়ী দেশের ৮টি বিভাগের হাসপাতালগুলোতে অক্সিজেন সিলিন্ডার রয়েছে মাত্র ১০ হাজার ২২০টি। যা করোনা রোগীদের সংখ্যার তুলনায় ৮ শতাংশেরও কম।

সূত্র,সময় নিউজ

এই পোষ্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন।

Design & developed by Masum Billah