মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ০২:৫৮ পূর্বাহ্ন

ভালো নেই কওমি মাদরাসার শিক্ষকরা

আরাফাত নুর:

মহামারি করোনার কারণে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় মানবেতর জীবন যাপন করছেন দেশের প্রায় লক্ষাধিক কওমি শিক্ষক। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে বেতন ভাতাও নেয়া হচ্ছে না।বন্ধ আছে জনসাধারণের দান খয়রাতও।এ অবস্থায় দুর্বিষহ জীবন যাপন করছেন দেশের প্রায় লক্ষাধিক কওমি শিক্ষক ও তাদের পরিবার।

জানা যায়, শিক্ষকতার সম্মানিত পেশায় থাকার কারনে তারা ত্রাণের লাইনে বা কোন জায়গায় হাত পাততেও পারেননি। তারা আজ না খেয়ে জীবন বাঁচার তাগিদে পরিবারের মুখে এক মুঠো ভাত তুলে দেয়ার জন্য বিভিন্ন পেশায় নেমে পড়েছে।

এমন দেখা যাচ্ছে, কেউ কেউ অটো রিক্সা-ভ্যানে করে ফল,সবজি বিক্রিতে নেমেছে,কেউ অনলাইনে পন্য বিক্রয় করে যাচ্ছে, কেউ বিভিন্ন দোকানে কর্মচারী পেশায় নেমেছে।

উত্তরার বিশিষ্ট আলেমেদীন মুফতি নেয়ামতুল্লাহ আমিন যুবকণ্ঠকে বলেন,দেশে কওমি মাদরাসার অবদান অনেক। কিন্তু সে অনুযায়ী কওমি মাদরাসার শিক্ষরা সহযোগিতা পাচ্ছেই না বলা চলে। প্রায় চারমাস ধরে শিক্ষকদরে বেতন দিতে পারছিনা।তাই অনেক শিক্ষক দু-বেলা খেয়ে না খেয়ে অভাব অনটনে দিন অতিবাহিত করছে।আজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের প্রায় ১০০ দিন অতিক্রান্ত হলো।কিন্তু কওমি অঙ্গনের বড় একটা জনগোষ্ঠী আজ তিন মাসের উপরে কত দুর্বিষহ জীবন যাপন করছে তা বলে ভাষায় প্রকাশ করার মতো নয়।

তিনি আরও বলেন,আমাদের সাহায্য দেয়ার দরাকর নেই প্রয়োজনে আমাদের সহজ শর্তে ঋণ দিন।তাহলেই আমরা আপনার প্রতি কৃতজ্ঞ থাকবো।

এই পোষ্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন।

Design & developed by Masum Billah