বাবরি মসজিদ পুনরুদ্ধারে এবার আন্তর্জাতিক আদালতে মামলা করার ঘোষণা কুয়েতের আইনজীবির

যুবকণ্ঠ ডেস্ক; কল্পনার স্রোতে ভেসে মসজিদের স্থানেই রামের জন্মের ধুয়ো তুলে ভেঙে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয় 600 বছরের ঐতিহ্যবাহী ঐতিহাসিক বাবরি মসজিদ। সেই ধ্বংসস্তুপের উপর এই শেষ পেরেক পুঁতে দেয় হিন্দু ধর্মের একাংশের বিশ্বাস অনুযায়ী ভারতের সর্বোচ্চ ন্যায়ালয়ের একটি রায়। কয়েক শতাব্দী প্রাচীন মসজিদের ধ্বংসস্তুপের উপর গড়ে উঠবে রামমন্দির। আগামী 5 ই আগস্ট হবে বিতর্কিত স্থানে রাম মন্দিরের শিলান্যাস এবং ভীত পুজো। উপস্থিত থাকবেন পৃথিবীর সর্ববৃহৎ গণতন্ত্র ও ধর্মনিরপেক্ষ ভারতের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এবার বাবরী মসজিদ পুনরুদ্ধারে আন্তর্জাতিক বিচারালয়ের শরণাপন্ন হতে চলেছেন কাতারের কুয়েতের একজন বিখ্যাত আইনজীবী। বাবরি মসজিদের স্থানে রাম মন্দিরের শিলান্যাস হওয়ার ঠিক আগেই আন্তর্জাতিক মহলেও বিষয়টি যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ হয়ে উঠেছে। বাংলাদেশ সরকার ও সম্প্রতি এ বিষয়ে তাদের ক্ষেদ ব্যক্ত করেছে। এবার বিষয়টি নিয়ে আন্তর্জাতিক আদালতে যাওয়ার কথা জানিয়েছেন কুয়েতের বিশ্ব বিখ্যাত আইনজীবী ও মানবাধিকার সংগঠনের প্রধান মুজবিল আল শুরেকা। মিস্টার সুরকা তিনি তার সর্বশেষ টুইটে। একটি চিঠি শেয়ার করেছেন যেখানে তিনি অল ইন্ডিয়া মুসলিম পার্সোনাল ল বোর্ড কে বিষয়টি আন্তর্জাতিক আদালতে নেওয়ার ব্যাপারে সম্মতির অনুরোধ জানিয়েছেন। তিনি তাঁর চিঠিতে জানিয়েছেন, ‘এটি ভারতীয় মুসলিমদের উদ্বিগ্ন হওয়ার বিষয় এবং ধর্মীয় ও মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিষয়টি ও এর সঙ্গে যুক্ত তাই, আমি আপনাকে অনুরোধ করবো আপনার বোর্ডের সদস্যদের নিয়ে একটি সভা ডাকুন। এবং বাবরি মসজিদ মামলাটি আন্তর্জাতিক আদালতে তোলার দায়িত্ব মঞ্জুর করুন। ‘ সূত্র-ডেইলি মর্নিং