মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ১২:০০ অপরাহ্ন

শিরোনামঃ
রাষ্ট্রের পুনর্গঠন : তাত্ত্বিক আলোচনা বনাম বাস্তবতা সৈয়দ শামছুল হুদা ১৮ ভোট কেন্দ্রে কচুয়ার ২ ইউনিয়নের উপ-নির্বাচন কাল উত্তাল পাকিস্তান, ‘ইমরান খানের পদত্যাগ চাই’ প্রেমিকাকে ধর্ষণ করে অন্যকে ফাঁসাতে গিয়ে ফেঁসে গেলো ছাত্রলীগ নেতা মাওলানা সিরাজীর স্মরণে বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস যুক্তরাজ্য শাখার ভার্চুয়াল সভা অনুষ্ঠিত তাইওয়ানে হামলা চালানোর প্রস্তুতি নিচ্ছে চীন ইসরায়েলে অবতরণ করলো আমিরাতের প্রথম ফ্লাইট সিলেটে রায়হান হত্যাকান্ডে প্রধান অভিযুক্ত আকবরকে ধরিয়ে দিলে ১০লক্ষ টাকা পুরস্কার ঘোষণা মেয়র আতিকের পরিবারের ২০ সদস্য করোনায় আক্রান্ত হাতিরঝিলের সেই অজ্ঞাত লাশের রহস্য উদঘাটন হলো যেভাবে

বাবুনগরীকে সহকারী পরিচালক পদে পুনর্বহালের দাবিতে সমাবেশের ডাক চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের

যুবকণ্ঠ ডেস্ক;

বাংলাদেশের বিভিন্ন কওমি মাদ্রাসা ও শিক্ষা বোর্ডে চলমান অস্থিরতা দূরীকরণের লক্ষ্যে কওমি মাদ্রাসা সমর্থক নাগরিক পরিষদের ব্যানারে চট্টগ্রাম নগরিতে বাদ মাগরিব এক গোল টেবিল আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। কওমি মাদ্রাসার চলমান সংকট নিরসনে নাগরিক সমাজের ভাবনা শীর্ষক আলোচনা সভায় অধ্যাপক, সামাজ সেবক, রাজনীতিবিদ, আইনজীবি ও সাংবাদিকসহ সমাজের বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।
চলমান এ সংকটের সূচনা ও তার সমাধান নিয়ে দিকনির্দেশনামূলক আলোচনা পেশ করেন উপস্থিত বক্তারা।

এ সময় বক্তারা বলেন, কওমি মাদরাসর সাথে জনগণের বিশালতম একটি অংশ সামাজিকভাবে সম্পৃক্ত। অর্থদাতা, ছাত্রদের অভিভাবক, শুভানুধ্যায়ী, ভক্ত-মুরীদ এবং মাহফিলের আয়োজক ও শ্রোতা হিসেবে আমরা ওতোপ্রোতভাবে কওমি ঘরানার সাথে জড়িত। আমরা কওমী মাদরাসাকে ইসলামের প্রাধান দূর্গ মনে করি, কিন্তু চলমান অস্থিরতা আমাদেরকে কওমি- হিতাকাঙ্ক্ষী হিসেবে দারুণভাবে বিচলিত করে তুলেছে।

বক্তারা আরো বলেন, ‘আমরা কওমি মাদ্রাসা এবং তার ছাত্র-শিক্ষদের মনেপ্রাণে ভালবাসি। কওমি মাদ্রাসাগুলো জাতির অর্থায়নে চলে। সাধারণ মানুষ সেখানে জায়গা জমি টাকা পয়সা দিয়ে সহায়তা করে। সুতরাং এসব মাদ্রাসাকে পৈত্রিক সম্পত্তি মনে করে কেউ জোর জুলম ও জবর দখল চালালে জাতি বরদাশত করবে না। এসব জাতীয় প্রতিষ্ঠান কোনো মুহতামিমের নয়। কোনো পীর বা বুজুর্গের নয়। এগুলো দীনি আমানত। এ আমানতের খেয়ানত হলে ধর্মপ্রাণ মুসলমান বসে থাকবে না।

বক্তারা আরো বলেন, আমরা গভীরভাবে লক্ষ করছি, একটি চিহ্নিত মহল বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে অন্যায়ভাবে প্রভাব খাটাচ্ছে। এসকল মাদ্রাসার শত বৎসরের ঐতিহ্যকে নিজেদের স্বার্থে বিসর্জন দিয়ে দিচ্ছে।
এদেশের সমাজ ও সামাজিকতার সাথে কওমি আলেমেদের গভীর সম্পর্ক রয়েছে। সর্বসাধারণের মাঝে তাদের গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে।

আলোচনা সভা শেষে কওমি সমর্থক নাগরিক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মুসা কলিমুল্লাহ পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা করে নয় দফা দাবি তুলে ধরেন।

এক. ভারতের দেওবন্দ মাদ্রাসার উসুলে হাসরতেগানার ভিত্তিতে বাংলাদেশের কওমি মাদ্রাসা পরিচালানার দাবিতে ঢাকা জাতীয় প্রেস ক্লাবে সেমিনার আয়োজন।

দুই. হাটহাজারী মাদ্রাসার সিনিয়র মুহাদ্দিস আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরীকে সহকারী পরিচালক পদে পুনর্বহালের দাবিতে সমাবেশ ও মানববন্ধন।

তিন. আল্লামা শফী ও তার পুত্র আনাস মাদানির প্রভাবে একটি স্বার্থান্বেষী কুচক্রী মহল নাজিরহাট মাদ্রাসাসহ বিভিন্ন কওমি মাদ্রাসায় মুহতামিম পদ ও শিক্ষক পদে বেআইনিভাবে জোরপূর্বক যে রদবদল কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে এবং বিভিন্ন কওমি মাদ্রাসায় জমাকৃত কোটি কোটি টাকা আত্মসাতের মহোৎসব চলছে তা বন্ধ করার জন্য আমরা জনমত গঠন করব। আপনারা সবাই আমাদের সাথে থাকবেন।

চার. যেসব বিতর্কিত ব্যক্তির কার্যকলাপ কওমি মাদ্রাসার স্বার্থে জাতি লক্ষ্য করছে ওই সব ব্যক্তি ও তাদের পরিবারবর্গের সদস্যদের বিরুদ্ধে জ্ঞাত অজ্ঞাত সমস্ত আয় বহির্ভূত সম্পত্তির ব্যাপারে দুর্নীতি দমন কমিশন ও আইকর বিভাগ কর্তৃক সরকারের উদ্যোগে মামলা করার দাবিতে আমরা সমাবেশ ও মানববন্ধন গড়ে তুলব।
পাঁচ. যেসকল কওমি মাদ্রাসার জমাকৃত টাকা আত্মাসাতের উদ্দেশ্যে যেসকল মাদ্রাসা আনাস মাদানি ও তার গ্রুপ মুহতামিম পরিবর্তেনের ষড়যন্ত্র করছেন, এবং তাদের পক্ষীয় নতুন মুহতামিম নিয়োগ করে ওইসব মাদ্রাসার ওইসব মাদ্রাসার টাকা আত্মসাৎ করা চেষ্টা করছে ওই সব মাদ্রাসার বর্তমান অধ্যাক্ষের পক্ষে আমরা জজ কোর্ট ও হাইকোর্টে আইনজীবিদের সাথে নিয়ে মামলা দায়ের করব।

ছয়. অনেক কওমি মাদ্রাসায় দেখা যায় যেসব দাতারা বিভিন্ন জমি বা সম্পত্তি দান করেছেন তার কোনো রেজিস্ট্রি নাই। দানকৃত আনরেজিস্ট্রি সম্পত্তিগুলো নতুনভাবে মাদ্রাসার নামে রিজিস্ট্রি করে মাদ্রাসাকে হস্তান্তরে আইনগত পদক্ষেপ নিতে হবে।
সাত. নাজিরহাট মাদ্রাসার বৈধ শুরা বৈঠক আহ্বান করে বৈধভাবে মুহতামিম নির্বাচন করতে হবে।
আট. নাজিরহাট মাদ্রাসার অন্যায় ও জোরপূর্বক পদচ্যুত ভারপ্রাপ্ত মুহতামিমকে সপদে ফিরে আনতে হবে। অন্যাথায় আমরা মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করতে বাধ্য হবো।

নয়. কওমি মাদ্রাসার শিক্ষা বোর্ড বেফাকুল মাদারিস হাইয়াতুল উলইয়ার তথা কওমি মাদ্রাসাসমূহহের গত পাঁচ বছরের সীমাহীন দুর্নীতি কার্যক্রমগুলোর তদন্ত করা, সনদ জালিয়াতিসহ সকল দুর্নীতির তদন্তপূর্বক বিচারের ব্যবস্থা করতে হবে।
উক্ত গোল টেবিল আলোচনা সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন, রাজনীতিবিদ আবদুর রহমান চৌধুরী, এ্যাডভুকেট নিজাম, কবি মাহমুদুল হাসান নিজামি, সাংবাদিক আলী হাসানসহ আরো অনেকে।

এই পোষ্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন।

Design & developed by Masum Billah