মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ১১:১২ পূর্বাহ্ন

শিরোনামঃ
রাষ্ট্রের পুনর্গঠন : তাত্ত্বিক আলোচনা বনাম বাস্তবতা সৈয়দ শামছুল হুদা ১৮ ভোট কেন্দ্রে কচুয়ার ২ ইউনিয়নের উপ-নির্বাচন কাল উত্তাল পাকিস্তান, ‘ইমরান খানের পদত্যাগ চাই’ প্রেমিকাকে ধর্ষণ করে অন্যকে ফাঁসাতে গিয়ে ফেঁসে গেলো ছাত্রলীগ নেতা মাওলানা সিরাজীর স্মরণে বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস যুক্তরাজ্য শাখার ভার্চুয়াল সভা অনুষ্ঠিত তাইওয়ানে হামলা চালানোর প্রস্তুতি নিচ্ছে চীন ইসরায়েলে অবতরণ করলো আমিরাতের প্রথম ফ্লাইট সিলেটে রায়হান হত্যাকান্ডে প্রধান অভিযুক্ত আকবরকে ধরিয়ে দিলে ১০লক্ষ টাকা পুরস্কার ঘোষণা মেয়র আতিকের পরিবারের ২০ সদস্য করোনায় আক্রান্ত হাতিরঝিলের সেই অজ্ঞাত লাশের রহস্য উদঘাটন হলো যেভাবে

মোবাইল সংযোগ নিশ্চিত করতে প্রথম হাইব্রিড সোলার উইন্ড টাওয়ার স্থাপন

রবিউল আউয়াল-

দেশের যে এলাকাগুলো জাতীয় বিদ্যুৎ গ্রিডের অন্তর্ভুক্ত নয়, সেসকল স্থানের নেটওয়ার্ক শক্তিশালিকরণে এ উদ্যোগ নেয়া হযেছে। উদ্ভাবনী, টেকসই ও বিদ্যুৎসাশ্রয়ী সলিউশন স্থাপনের মাধ্যমে টেলিকম টাওয়ারগুলোতে বিকল্প শক্তি ব্যবহার করে দেশজুড়ে নিরবচ্ছিন্ন সংযোগ নিশ্চিত করতে এই পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

প্রত্যন্ত এলাকার নেটওয়ার্ক সম্প্রসারনে এ পদক্ষেপ নিয়েছে সমন্বিত টেলিযোগাযোগ অবকাঠামো সেবা কম্পানি ইডটকো বাংলাদেশ।

একটি স্থায়ী গ্রিন হাইব্রিড এনার্জি সলিউশন দিয়ে গঠিত। যা সর্বোচ্চ ১২ কিলোওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন সোলার থেকে দৈনিক প্রতি ঘণ্টায় ৪২ কিলোওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন সম্ভব। টাওারের মাথায় বসানো চার কিলোওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন বায়ু ঘূর্ণিযন্ত্র থেকে ঘণ্টায় ছয় কিলোওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে পারে। এর মাধ্যমে সার্বক্ষণিক বিদ্যুৎ সরবরাহ নিশ্চিত করা সম্ভব। হাইব্রিড পাওয়ার প্লান্টটি টেলিকম সিস্টেমকে সারা বছর সক্রিয় রাখবে। নবায়নযোগ্য এই এনার্জি সলিউশন ডিজেলের ব্যবহার কমানোসহ সার্বিকভাবে টাওয়ার রক্ষণাবেক্ষণের খরচ কমানোর ক্ষেত্রে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে।

এই পোষ্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন।

Design & developed by Masum Billah