বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০, ১০:২৩ অপরাহ্ন

শিরোনামঃ
‘বাজার-ঘাটে মুখে মাস্ক নেই, মসজিদে না পরে আসলি যত সমস্যা’ বিশ্বে একদিনে আবারো সর্বোচ্চ প্রাণহানি উইঘুর মুসলিমদের নির্যাতিত বলায় পোপকেও ছাড় দেয়নি চীন আমার কণ্ঠ চেপে ধরলেও মূর্তি ও ভাস্কর্যের বিরুদ্ধে বলেই যাবো: মাওলানা মামুনুল হক আল্লামা আহমদ শফী রহ. পরিষদে মূসা সভাপতি ও রাজী সেক্রেটারী জেনারেল নির্বাচিত করোনায় আক্রান্ত পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং পররাষ্ট্র সচিব চরমোনাই পীর ও মামুনুল হকের কিছু হলে তৌহিদী জনতা বসে থাকবে না মাওলানা মামুনুল হকের বিরুদ্ধে অপপ্রচার ও ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে গাজীপুরে যুব মজলিসের বিক্ষোভ ময়মনসিংহে যুব মজলিসের বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত!! মামুনুল হক যে বক্তব্য দেন তা রাষ্ট্রদ্রোহিতার শামিল: রাব্বানী

এখলাসের সাথে দ্বীনি খেদমত করুন: আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী

গতকাল ফারেগিন ছাত্রদের উদ্দেশ্যে নসিহতমূলক বয়ান পেশ করেন আল জামেয়াতুল আহলিয়া দারুল উলুম মুঈনুল ইসলাম হাটহাজারী মাদ্রাসার সম্মানিত শায়খুল হাদিস ও হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ এর মহাসচিব আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী হাফিজাহুল্লাহ।

তিনি ছাত্রদের দ্বীনি খেদমত তথা ইলেম শিক্ষা, দ্বীনি মাদারিস প্রতিষ্ঠার প্রতি বিশেষভাবে উৎসাহিত করেন।
সাথে সাথে দাওয়াতে তাবলিগের কাজে বিশেষ মেহনতের প্রতিও আহ্বান জানান।

তিনি আরো বলেন, দ্বীনি খেদমত যতই ছোট হোক তাকে কখনো ছোট মনে না করে এখলাসের সাথে দ্বীনি কাজ আঞ্জাম দাও।
এখলাসের সাথে মক্তবে পড়ানো বোখারী শরীফ পড়ানোর সমান সওয়াব।

তিনি আরো আহ্বান জানান, চলমান পরিস্থিতি নিয়ে যেন কোনরকম গুজব ছড়ানো না হয়, জামিয়ার শান্ত পরিবেশ এবং নিয়মতান্ত্রিক কার্যক্রম পরিস্থিতি সম্পর্কে সঠিক তথ্য মানুষের কাছে তুলে ধরার জন্য বিশেষভাবে আহবান করেন।

তিনি বলেন, হযরতের মৃত্যু নিয়ে একটি মহল গুজব ছড়াচ্ছে, উপস্থিত ওলামা-তলাবাদের আহবান করেন, যেন এই বিষয়ে সঠিক তথ্য জনগনের মাঝে তুলে ধরেন যে, হযরতের মৃত্যু স্বাভাবিক ছিল।
প্রথমে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়ায় সাথে সাথে ওনাকে চট্টগ্রাম হসপিটালে ভর্তি করা হয়।
অতপর সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা রাজধানী আজগর আলি হসপিটালে স্থানান্তর করা হয় এবং সেখানেই তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

তিনি আরো বলেন, হযরতের ইন্তিকালের পর মজলিসে শুরা কর্তৃক নির্ধারিত দুটি কমিটি মাজলিশে ইদারা ও মজলিশে ইলমীর সিদ্ধান্তে মাদ্রাসা পরিচালিত হবে,দ।
এমনকি শিক্ষক যোগ-বিয়োগসহ যাবতীয় কাজ মাজলিসে ইদারা ও মাজলিসে ইলমী’র পরামর্শ অনুযায়ী আঞ্জাম দেওয়া হবে।
কারো একক অধিকার চলবেনা, এক নায়কতন্ত্রের ও দিন শেষ বলে সবাইকে আস্বস্থ করেন।

এই পোষ্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন।

Design & developed by Masum Billah