মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ১১:৩৪ পূর্বাহ্ন

শিরোনামঃ
রাষ্ট্রের পুনর্গঠন : তাত্ত্বিক আলোচনা বনাম বাস্তবতা সৈয়দ শামছুল হুদা ১৮ ভোট কেন্দ্রে কচুয়ার ২ ইউনিয়নের উপ-নির্বাচন কাল উত্তাল পাকিস্তান, ‘ইমরান খানের পদত্যাগ চাই’ প্রেমিকাকে ধর্ষণ করে অন্যকে ফাঁসাতে গিয়ে ফেঁসে গেলো ছাত্রলীগ নেতা মাওলানা সিরাজীর স্মরণে বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস যুক্তরাজ্য শাখার ভার্চুয়াল সভা অনুষ্ঠিত তাইওয়ানে হামলা চালানোর প্রস্তুতি নিচ্ছে চীন ইসরায়েলে অবতরণ করলো আমিরাতের প্রথম ফ্লাইট সিলেটে রায়হান হত্যাকান্ডে প্রধান অভিযুক্ত আকবরকে ধরিয়ে দিলে ১০লক্ষ টাকা পুরস্কার ঘোষণা মেয়র আতিকের পরিবারের ২০ সদস্য করোনায় আক্রান্ত হাতিরঝিলের সেই অজ্ঞাত লাশের রহস্য উদঘাটন হলো যেভাবে

কৃষিখাতে নতুন সম্ভাবনা জারবেরা ফুল

জারবেরা ফুল

বাহারি রঙের এই ফুলটির বৈজ্ঞানিক নাম জারবেরা। জার্মান পরিবেশবিদ ট্রাগোট জরবার প্রথম এই ফুলের অস্তিত্ব আবিস্কার করেন। সেখান থেকে তার নামানুসারেই ফুলটির নাম রাখা হয় জারবেরা।

মাটি, স্থান ও পরিচর্যা ভেদে ফুলটির উচ্চতা হতে পারে ৩০-৫০ সে.মি.পর্যন্ত। চারা রোপণের তিন মাস পরেই ফুল ফুটতে শুরু করে গাছের আগায়।
চাহিদার দিক থেকে সারাবিশ্বে ফুলের বাজারে তুঙ্গে যে ফুলগুলো রয়েছে, তারমধ্যে জারবেরা অন্যতম।ইদানিংকালে বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বে জার্বেরার চাষ বৃদ্ধি পাচ্ছে।

সাভারে বিরুলিয়া ইউনিয়নের ভাগ্নিবাড়ি এলাকায় ৫ নং ওয়ার্ডের জনপ্রতিনিধি মনিরুল হক প্রায় চার বিঘা জমিতে চাষ করছেন ভিনদেশী এই ফুল।
তিনি জানান, “দুই বছর আগে আমি এই ফুল চাষ শুরু করি। এ পর্যন্ত বেশ ভালোই যাচ্ছে দিনকাল। তবে করোনার মধ্যে বাগান টিকিয়ে রাখতে বেশ বেগ পেতে হয়েছিল। ১০ জন কর্মচারির বেতন দিয়ে এসেছি। তাদের বেতন ও পরিচর্যার খরচ টানতে লোন নিতে বাধ্য হয়েছিলাম। তবে আশার কথা হলো এখন আবার সুদিন ফিরে এসেছে।”

এই বাগান থেকে প্রতিদিন আড়াই হাজার ফুল তোলেন এখানকার মালিরা। ৪০ টিরও বেশি প্রজাতির এই ফুল পাইকারি দরে বিক্রি হয় ১০ টাকা করে। প্রতি বিঘায় মাসিক আয় প্রায় ২ লক্ষ টাকা। সে হিসেবে চার বিঘার এই বাগান থেকে মাসিক আয় চার ৮ লক্ষ টাকা টাকা।
অন্যান্য ফুলের তুলনায় বেশি যত্ন নিতে হয় এই ফুল চাষে। বৃষ্টির পানি থেকে বাঁচতে ও তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণে বাগানের উপর সাঁটিয়ে দিতে হয় ইসরাইল থেকে আমদানিকৃত বিশেষ ধরনের পলিথিন।

সম্ভাবনাময় জারবেরার কথা চিন্তা করে এবং দেশের ফুল চাষীদের প্রতি লক্ষ্য রেখে বহির্বিশ্ব থেকে ফুল আমদানি করা বন্ধ করার দাবি তুলেছেন জারবেরা চাষীরা।

এই পোষ্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন।

Design & developed by Masum Billah