বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০, ১০:৩৪ অপরাহ্ন

শিরোনামঃ
‘বাজার-ঘাটে মুখে মাস্ক নেই, মসজিদে না পরে আসলি যত সমস্যা’ বিশ্বে একদিনে আবারো সর্বোচ্চ প্রাণহানি উইঘুর মুসলিমদের নির্যাতিত বলায় পোপকেও ছাড় দেয়নি চীন আমার কণ্ঠ চেপে ধরলেও মূর্তি ও ভাস্কর্যের বিরুদ্ধে বলেই যাবো: মাওলানা মামুনুল হক আল্লামা আহমদ শফী রহ. পরিষদে মূসা সভাপতি ও রাজী সেক্রেটারী জেনারেল নির্বাচিত করোনায় আক্রান্ত পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং পররাষ্ট্র সচিব চরমোনাই পীর ও মামুনুল হকের কিছু হলে তৌহিদী জনতা বসে থাকবে না মাওলানা মামুনুল হকের বিরুদ্ধে অপপ্রচার ও ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে গাজীপুরে যুব মজলিসের বিক্ষোভ ময়মনসিংহে যুব মজলিসের বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত!! মামুনুল হক যে বক্তব্য দেন তা রাষ্ট্রদ্রোহিতার শামিল: রাব্বানী

বিজেপি বিহারে মহাসংকটে : নির্বাচন ২৮ অক্টোবর শুরু

যুবকণ্ঠ ডেস্ক;

ভারতের সম্প্রতি দলিত সম্প্রদায়ের মেয়ের উপর যে ঘটনা ঘটেছে তার প্রত্যক্ষ প্রভাব পড়ার আশঙ্কা তৈরি হয়েছে বিহারের দলিত অধ্যূষিত এলাকাগুলোতে। ফলে বিজেপি জোটের কাছে এই ঘটনা হয়ে উঠতে পারে অশনি সংকেত।

উত্তরপ্রদেশে ক্ষমতাসীন বিজেপি পরিচালিত যোগী আদিত্যনাথ সরকার। ফলে গোটা ঘটনার দায় বিজেপির কাঁধে বর্তে যাওয়া অস্বাভাবিক কিছু নয়। বিশেষ করে হাথরসে নির্যাতিতার মৃত্যুর পর যেভাবে পুলিশ প্রশাসন বিষয়টিকে ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করেছে এবং যেভাবে ন্যাক্কারজনকভাবে কংগ্রেস এবং তৃণমূলের প্রতিনিধিদের আটকে দেয়া হয়েছে তা নিয়ে দেশজুড়ে ক্ষোভের পারদ বাড়ছে।

তার উপর সংবাদমাধ্যমকে যেভাবে বাধা দেয়া হয়েছে তার লাইভ ফুটেজ ভাইরাল হয়েছে বিভিন্ন গণমাধ্যমে। যে ঘটনায় নিন্দার ঝড় শুধু দেশের মাটিতেই নয়। সামাজিক মাধ্যমের সাহায্যে বিদেশেও ওই ঘটনা ভাইরাল হয়েছে। বিশেষ করে মহিলা সাংবাদিকদের প্রতি পুলিশের যে ব্যবহার তার নিন্দায় সরব হয়েছেন বহু বিদেশীও।

যার ফলে উত্তরপ্রদেশের যোগী আদিত্যনাথ সরকারের উপর যেমন চাপ বেড়েছে, তেমনি ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হয়েছে বিজেপিরও। আসন বাংলা এবং বিহারের মাটিতে যেখানে বিজেপি শিবির একটা ভালো রাজনৈতিক অবস্থানে বিরাজ করছিলো সেখানে আচমকা ঘটে যাওয়া হাথরসের ঘটনা অনেকটাই ধাক্কা দিতে পারে বলে রাজনৈতিক মহলের ধারনা।

ভারতের বিহার রাজ্যে বেজে গিয়েছে বিধানসভা নির্বাচনের দামামা। বিহারে আগামী ২৮ অক্টোবর, ৩ নভেম্বর এবং ৭ নভেম্বর মোট তিন দফায় বিধানসভা নির্বাচন হবে। ভোট গণনা হবে আগামী ১০ নভেম্বর। মূলত এবার বিহারে নীতিশ-বিজেপি জোটকে লড়াই করতে হবে কংগ্রেস-আরজেডি মহাজোটের বিরুদ্ধে। ফলে মহাজোটের বিরুদ্ধে লড়াইকে মোটেই হাল্কা করে নিতে পারবে না বিজেপি।

আসন্ন নির্বাচনের আগে ভারতের উত্তরপ্রদেশের হাথরসের ঘটনা রীতিমতো বিহারের দলিত সম্প্রদায়ের উপর প্রভাব ফেলতে শুরু করেছে। দলিত অধ্যুষিত বিহারের অধিকাংশ জায়গায় হাথরসের ঘটনায় ক্ষোভের পারদ চড়ছে। বিহার বিধানসভা নির্বাচনের আগে পাল্টাতে পারে রাজনৈতিক সমীকরণ। উত্তরপ্রদেশের হাথরসের ঘটনার প্রভাব পড়তে পারে বিহারের বিধানসভা নির্বাচনে।

এই পোষ্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন।

Design & developed by Masum Billah