বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ১২:৫৫ পূর্বাহ্ন

শিরোনামঃ
ধর্মের দোহাই দিয়ে উসকানিমূলক বক্তব্য বরদাস্ত করা হবে না: এমপি শিবলী ফটিকছড়িতে আমীরে হেফাজত আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরীকে গণ সংবর্ধনা প্রদান পাকিস্তানে ধর্ষকদের পুরুষাঙ্গ অকেজোর সাজা অনুমোদন আগামী প্রজন্মকে ধর্মহীন বানানোর চক্রান্ত চলছে: ইসলামী ঐক্য আন্দোলন ওয়াজ মাহফিল: সমাজ সংস্কার ও শুদ্ধ মানুষ গড়ার অনন্য আয়োজন ‘বাজার-ঘাটে মুখে মাস্ক নেই, মসজিদে না পরে আসলি যত সমস্যা’ বিশ্বে একদিনে আবারো সর্বোচ্চ প্রাণহানি উইঘুর মুসলিমদের নির্যাতিত বলায় পোপকেও ছাড় দেয়নি চীন আমার কণ্ঠ চেপে ধরলেও মূর্তি ও ভাস্কর্যের বিরুদ্ধে বলেই যাবো: মাওলানা মামুনুল হক আল্লামা আহমদ শফী রহ. পরিষদে মূসা সভাপতি ও রাজী সেক্রেটারী জেনারেল নির্বাচিত

“ধর্ষকদের ফাঁসির দাবিতে রাজপথে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার যুবসমাজ”

যুবকণ্ঠ ডেস্ক;
নোয়াখালীর গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে পাশবিক নির্যাতনের প্রতিবাদে ও সিলেটের এমসি কলেজসহ সারাদেশের সকল ধর্ষকের ফাঁসির দাবিতে “ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সচেতন যুবসমাজ” র বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।
আজ বেলা ১১টায় জেলা শহরের মুক্তমঞ্ছ হতে প্রেসক্লাব পর্যন্ত বিক্ষোভ মিছিলটি অনুষ্ঠিত হয়।
বিক্ষোভ শেষে হাফেজ মাওলানা সৈয়দ কাসেমের সঞ্চালনায় প্রেসক্লাবের সামনে বক্তারা বলেন, “দেশে মানবরচিত সংবিধান আর বিচার ব্যবস্থার মাধ্যমে ধর্ষণের মাত্রা কমানো সম্ভব নয়। ইসলামি বিচার ব্যবস্থা কায়েম করলে ইনশাআল্লাহ দেশে ধর্ষণের মাত্রা কমে যাবে।”
বক্তারা আরো বলেন, “এদেশের প্রধানমন্ত্রী একজন নারী। তারপর দেশে ধর্ষনের বিচার হয় না। এটা খুবই লজ্জাজনক। ধর্ষণের শাস্তি মৃত্যুদণ্ড করতে হবে। দেশে ধর্ষণের দৃষ্টান্তমূলক বিচার হয়না বলেই দিনদিন ধর্ষণের মাত্রা বেড়ে চলেছে। সংসদে ধর্ষণের শাস্তি মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করার সিদ্ধান্ত নিলে দেশে ধর্ষকের সংখ্যা কমে যাবে। ধর্ষণ কমে যাবে।”
এসময় যারা বক্তব্য রাখেন— মাওলানা ইউসুফ ভূঁইয়া, হাফেজ মাওলানা জুনাইদ কাসেমী, হাফেজ মাওলানা খালেদ সিরাজী, আসাদুজ্জামান আসাদ, হাফেজ মাওলানা ইসহাক আল মামুন, হাফেজ ইকরামুল মারজান, মোহাম্মদ মঈন, সোহান মাহমুদ, মাওলানা আবুল হাসান, মো. রনি, মাওলানা ফরহাদ, হাফেজ রাইহান, নেহাল ইকরাম প্রমুখ।

এই পোষ্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন।

Design & developed by Masum Billah