মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ০৩:২৩ পূর্বাহ্ন

শিরোনামঃ
ইসলামের দৃষ্টিতে মূর্তি ও ভাস্কর্য ভাস্কর্য না করে স্মৃতি মিনার করুন, তাতে বঙ্গবন্ধুর আত্মা শান্তি পাবে : মুফতী ফয়জুল করীম মহাখালীতে সাততলা বস্তিতে আগুন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী হচ্ছেন জামালপুর-২ আসনের এমপি ফরিদুল হক খান মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ কে অনতিবিলম্বে নিষিদ্ধ ঘোষণা করতে হবে: সম্মিলিত কওমী প্রজন্ম ব্রাহ্মণবাড়িয়া ইসলামে মূর্তি ও ভাস্কর্য অবৈধ: ড. ইউসুফ আল-কারযাভী ভাস্কর্য ও মূর্তির অপব্যাখ্যাকারীরা হক্কানী আলেম হতে পারে না : বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন নামাজরত অবস্থায় ইমামের মৃত্যু উগ্রবাদী ও পাকিস্তানপন্থীরা এখন হেফাজতের নেতৃত্বে: মাওলানা জিয়াউল হাসান সময় এসেছে ওআইসির নেতৃত্বে সর্বভারতীয় মুসলিম দল গড়ার

ফ্রান্সের পণ্য বর্জন ও কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করতে হবে -আল্লামা মাহফুজুল হক

বেফাকুল মাদারিসিল আরাবীয়া বাংলাদেশের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব ও জামিয়া রাহমানিয়া আরাবিয়ার প্রিন্সিপাল মাওলানা মাহফুজুল হক বলেছেন, ফ্রান্স রাষ্ট্রীয়ভাবে মহানবী সা. এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শন করে গোটা বিশ্বের মুসলমানদের অন্তরে আগুন জালিয়েছে। এ আগুন নিবাতে হলে ফ্রান্সকে অবিলম্বে ক্ষমা চাইতে হবে। যারা মহানবী সা. এর অবমাননা করবে তাদের সাথে মুসলমানদের কোনো সম্পর্ক নেই, থাকতে পারে না। তিনি বলেন, বাংলাদেশের তাওহিদী জনতার ঈমানের দাবীর সাথে একাত্বতা প্রদর্শন করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ফ্রান্সের বিরুদ্ধে নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাবেন এটা দেশের মানুষের প্রত্যাশা। তিনি আরো বলেন, জাতীয় সংসদের চলতি অধিবেশনে ফ্রান্সের বিরুদ্ধে নিন্দা প্রস্তাব পাশ করতে হবে। ফ্রান্সের পণ্য ঐক্যবদ্ধভাবে বর্জন করতে হবে। কোনো ব্যবসায়ী ফ্রান্সের কোনো পণ্য আমদানী করবেন না। তিনি বলেন, রাসূলের ইজ্জত ও সম্মান রক্ষার্থে ফ্রান্সের সঙ্গে সকল ধরনের কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন ও অর্থনৈতিক অবরোধ আরোপ করতে হবে। মাওলানা মাহফুজুল হক বলেন, নবীর ইজ্জত রক্ষার্থে প্রয়োজনে প্রতিটি মুসলমানকে বুকের তাজা রক্ত ঢেলে দেওয়ার জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে। তিনি ঈমানী আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার জন্য ঈমানদার ও নবী প্রেমিক তাওহিদী জনতার প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানান।
তিনি আজ দুপুরে মুহাম্মদপুর টাউন হল চৌরাস্তায় ‘ইত্তেফাকুল মাদারিসিল কওমিয়া মুহাম্মদপুরের উদ্যোগে ফ্রান্সে মহানবী সা. এর অবমাননার প্রতিবাদে আয়োজিত বিক্ষোভ মিছিল পূর্ব সমাবেশে প্রধান সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

বায়তুল জান্নাত মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা ওমর ফারুকের পরচিালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জামিয়া মুহাম্মাদিয়া আরাবিয়ার প্রিন্সিপাল আল্লামা আবুল কালাম, জামিয়া রাহমানিয়া আরাবিয়ার মুহাদ্দিস মাওলানা মামুনুল হক, জামিয়া ইসলামিয়া লালমাটিয়ার প্রিন্সিপাল মাওলানা ফারুক আহমাদ, জামিয়া ইসলামিয়া বায়তুল ফালাহ এর প্রিন্সিপাল মাওলানা মুহাম্মদ তালহা, ভাইস প্রিন্সিপাল ও শিক্ষাসচিব মাওলানা জালালুদ্দীন আহমদ, জামিয়া ওয়াহিদিয়া এর প্রিন্সিপাল মাওলানা যোবায়ের, মুহাদ্দিস মাওলানা আতাউল্লাহ আমীন, জামিয়া মুহাম্মাদিয়া আরাবিয়ার ভাইস প্রিন্সিপাল মাওলানা মোহাম্মাদ ফয়সাল, বাইতুল আমান আদাবরহ এর প্রিন্সিপাল মাওলানা মাহমুদুর রহমান, আদাবর আহসানুল উলূম মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা আমির হোসেন, ফাতেমাতুজ জোহরা মাদরাসার মুহামিম মাওলানা সাইফুল ইসলাম প্রমুখ।
মুহাম্মদপুর টাউন হল চৌরাস্তা থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে বেড়িবাঁধ মোড়ে গিয়ে মুনাজাতের মাধ্যমে শেষ হয়

এই পোষ্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন।

Design & developed by Masum Billah