মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ০৪:০৮ পূর্বাহ্ন

শিরোনামঃ
ইসলামের দৃষ্টিতে মূর্তি ও ভাস্কর্য ভাস্কর্য না করে স্মৃতি মিনার করুন, তাতে বঙ্গবন্ধুর আত্মা শান্তি পাবে : মুফতী ফয়জুল করীম মহাখালীতে সাততলা বস্তিতে আগুন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী হচ্ছেন জামালপুর-২ আসনের এমপি ফরিদুল হক খান মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ কে অনতিবিলম্বে নিষিদ্ধ ঘোষণা করতে হবে: সম্মিলিত কওমী প্রজন্ম ব্রাহ্মণবাড়িয়া ইসলামে মূর্তি ও ভাস্কর্য অবৈধ: ড. ইউসুফ আল-কারযাভী ভাস্কর্য ও মূর্তির অপব্যাখ্যাকারীরা হক্কানী আলেম হতে পারে না : বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন নামাজরত অবস্থায় ইমামের মৃত্যু উগ্রবাদী ও পাকিস্তানপন্থীরা এখন হেফাজতের নেতৃত্বে: মাওলানা জিয়াউল হাসান সময় এসেছে ওআইসির নেতৃত্বে সর্বভারতীয় মুসলিম দল গড়ার

অধ্যাপক জিয়ার বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহার চেয়ে ‘বিশিষ্ট নাগরিকদের’ বিবৃতি

শুদ্ধ উচ্চারণে আসসালামু আলাইকুম ওরহমাতুল্লাহ ও আল্লাহ হাফেজ বলাকে ‘জঙ্গিবাদের’ সাথে তুলনা করার প্রতিবাদে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাধবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. জিয়া রহমানের বিরুদ্ধে করা মামলাকে ‘হয়রানিমূলক’ আখ্যা দিয়ে অবিলম্বে তা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন কথিত ২২ জন বিশিষ্ট নাগরিক।

বুধবার (২৮ অক্টোবর) কথিত এই বিশিষ্ট নাগরিকদের পক্ষ থেকে দেওয়া যৌথ বিবৃতিতে বলা হয়, বহুদিন আগে দেওয়া অধ্যাপক ড. জিয়া রহমানের একটি টেলিভিশন টকশোর বক্তব্যের জন্য সম্প্রতি তার বিরুদ্ধে দুটি মামলা হয়েছে। এ ছাড়া সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমসহ নানাভাবে নানা রকম মিথ্যা অপপ্রচার শুরু হয়েছে এই প্রগতিশীল অধ্যাপকের বিরুদ্ধে।

অথচ যে বিষয়টি নিয়ে এ অপপ্রচার তা কোনো অবস্থাতেই ধর্মবিরোধী বক্তব্য নয় বলে বিবৃতিতে দাবি করা হয়। এতে আরো বলা হয়, ‘খোদা হাফেজ’ বাক্যটি পারস্যসহ সমগ্র ভারত উপমহাদেশের সমাজে যুগ যুগ ধরে পারস্পরিক বিদায় সম্ভাষণ হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। এটা কুরআন, হাদিস, সুন্নাহ প্রবর্তিত কোনো বিষয় নয়। এর ব্যবহারও যেমন কোনো ধর্মীয় বিষয় নয়, আবার এর পরিবর্তনও ধর্মসম্মত কোনো বিষয় নয় বলে বিবৃতি বলা হয়।

মামলার ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে বিবৃতিদাতারা দাবি করেন, আসলে একটি চিহ্নিত মহল এ দেশে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার ধারক প্রগতিশীল মানুষের বিরুদ্ধে নানা কৌশলে ধর্মকে ব্যবহার করে আসছে। ধর্মের অপব্যাখ্যার মাধ্যমে তারা সব সময় দেশের সংস্কৃতি ও আধুনিক জীবনবোধকে প্রতিহত করার অপচেষ্টা অব্যাহত রেখেছে বলেও কথিত বিশিষ্ট নাগরিকদের বিবৃতিতে দাবি করা হয়।

তারা ড. জিয়া রহমানের বিরুদ্ধে করা মামলা অতিসত্বর প্রত্যাহার করতে সরকারের কাছে দাবি জানিয়েছেন।

বিবৃতিতে স্বাক্ষরদাতারা হলেন-আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী, আবেদ খান, বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক, শাহরিয়ার কবির, অধ্যাপক ড. নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ, শিল্পী হাশেম খান, লে. জে. (অব) হারুনুর রশিদ, মে. জে. (অব.) মোহাম্মাদ আলী শিকদার, মে. জে. (অব.) আবদুর রশিদ, অধ্যাপক ডা. এম অহিদুজ্জামান, শফিকুর রহমান এমপি, শিল্পী অধ্যাপক জামাল আহমেদ, কাজী মুকুল, ড. আমজাদ, শ্যামলী নাসরিন চৌধুরী, অধ্যাপক ডা. মাহতাব আল মামুন স্বপ্নীল, মাহমুদ সেলিম, কামাল পাশা চৌধুরী, মানযার চৌধুরী সুইট, ডা. নুজহাত চৌধুরী শম্পা, শিক্ষাবিদ মমতাজ লতিফ প্রমুখ।

এই পোষ্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন।

Design & developed by Masum Billah