বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০, ০৯:৫৪ অপরাহ্ন

শিরোনামঃ
‘বাজার-ঘাটে মুখে মাস্ক নেই, মসজিদে না পরে আসলি যত সমস্যা’ বিশ্বে একদিনে আবারো সর্বোচ্চ প্রাণহানি উইঘুর মুসলিমদের নির্যাতিত বলায় পোপকেও ছাড় দেয়নি চীন আমার কণ্ঠ চেপে ধরলেও মূর্তি ও ভাস্কর্যের বিরুদ্ধে বলেই যাবো: মাওলানা মামুনুল হক আল্লামা আহমদ শফী রহ. পরিষদে মূসা সভাপতি ও রাজী সেক্রেটারী জেনারেল নির্বাচিত করোনায় আক্রান্ত পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং পররাষ্ট্র সচিব চরমোনাই পীর ও মামুনুল হকের কিছু হলে তৌহিদী জনতা বসে থাকবে না মাওলানা মামুনুল হকের বিরুদ্ধে অপপ্রচার ও ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে গাজীপুরে যুব মজলিসের বিক্ষোভ ময়মনসিংহে যুব মজলিসের বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত!! মামুনুল হক যে বক্তব্য দেন তা রাষ্ট্রদ্রোহিতার শামিল: রাব্বানী

মুসলমানদের বৃহৎ ঐক্য গড়ে তোলার বিকল্প নেই-মুফতি মুহাম্মদ ওয়াক্কাস।

জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ এর সভাপতি ও সাবেক মন্ত্রী মুফতি মুহাম্মদ ওয়াক্কাস বলেছেন, ইসলাম-মুসলমান, দেশ-জাতির কঠিন সংকটের মুখে দল-মত নির্বিশেষে বৃহৎ ঐক্যের বিকল্প নেই। আজ দুপুরে পল্টনের একটি রেস্তোরাঁয় জমিয়তের উদ্যোগে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।
তিনি আরো বলেন, মুসলিম বিশ্ব আজ গভীর সংকটে নিমজ্জিত। ইসলামের শেকড় উপড়ে ফেলার জন্য কুফরি শক্তিগুলো ঐক্যবদ্ধ। মুসলিম রাষ্ট্রগুলোকে প্রতিহিংসার আগুন জ্বালিয়ে ইসলামের ইতিহাস ঐতিহ্য ধ্বংস করা হচ্ছে। আফ্রিকায় লাখ লাখ মুসলমানের রক্ত নিয়ে হোলি খেলা ফ্রান্স সরকারের পৃষ্ঠপোষকতায় সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ মানব হজরত মুহাম্মদ সা. এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শন করে হচ্ছে। বাকস্বাধীনতার নামে প্রকাশ্যে কোরআনের অবমাননা করা হচ্ছে। এক কালিমায়ে বিশ্বাসী উম্মতে মুহাম্মদীকে অভিন্ন চেতনায় এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে।
অন্যান্যরা বলেন, বাংলাদেশকে ঘিরে নানামুখী চক্রান্ত চলছে। সুরক্ষিত বলয়ের মধ্যে থাকা সত্ত্বেও সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের উপর ঘরবাড়িতে রহস্যজনকভাবে আগুন দেওয়া হচ্ছে। আহমদীয়া মুসলিম জামাত নামে কাফের কাদিয়ানী গোষ্ঠী এবং খ্রিষ্টান মিশনারিগুলো অবাধে মুসলমানের ঈমানহরণ করে চলেছে।
যুব সমাজকে পঙ্গু করার জন্য ভয়াবহ মাদকের বিস্তার ঘটানো হয়েছে। ছোট্ট শিশু থেকে বৃদ্ধ নারীর সতীত্ব ইজ্জত-আব্রু নিয়ে খেলা করা হচ্ছে। বাংলাদেশ আজ ধর্ষণের উপত্যকায় পরিণত হয়েছে।
মানুষের জীবনের নিরাপত্তা নেই। সবখানে চলছে লুটপাটের মহোৎসব। আকাশছোঁয়া দ্রব্যমূল্যের কারণে মানুষের পক্ষে দুবেলা ডাল-ভাত খেয়ে জীবন ধারণ করাটাও কঠিন হয়ে পড়েছে।
এই সকল দেশি-বিদেশি চক্রান্ত মোকাবেলা করে স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষা, মুসলমানের ঈমান আকিদা সংরক্ষণ নারীর এবং ইজ্জত-আব্রু হেফাজতের জন্য জাতীয় নেতৃত্বকে সময়োপযোগী এবং সঠিক ভূমিকা পালন করতে হবে।

এতে বক্তব্য রাখেন ইসলামী ঐক্যজোট মহাসচিব মুফতি মুহাম্মদ ফয়জুল্লাহ, জমিয়াতের সিনিয়র সহ-সভাপতি মাওলানা আব্দুর রহিম ইসলামাবাদী, মাওলানা শহিদুল ইসলাম আনসারী, মহাসচিব মুফতি শেখ মুজিবুর রহমান, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা গোলাম মহিউদ্দিন ইকরাম, মুফতি রেজাউল করিম, মুফতি জিয়াউল হক মজুমদার, মাওলানা আব্দুল কাইয়ুম সুবহানী, লেবার পার্টির চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, মাওলানা রশিদ আহমদ ফেরদৌস, এনডিপি মহাসচিব মঞ্জুর হোসেন ঈসা, বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব গোলাম মোস্তফা ভুইয়া, ওয়ালী উল্লাহ আরমান, মুফতি জাকির হোসাইন খান, প্রিন্সিপাল বেলায়েত হুসাইন আল ফিরোজী, আলহাজ জামাল নাসের চৌধুরী, নেজামে ইসলাম পার্টির সভাপতি মাওলানা ওবায়দুল হক, ছাত্র জমিয়ত সেক্রেটারি সোহাইল আহমদ ও নিজাম উদ্দিন আদনান প্রমূখ।

এই পোষ্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন।

Design & developed by Masum Billah