বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ০৬:৪৫ অপরাহ্ন

শিরোনামঃ
মুফতী রহিমুল্লাহ কাসেমীর ইন্তেকালে আমীরে হেফাজতের শোক প্রকাশ বাংলাদেশে মূর্তি সংস্কৃতির স্থান হবে না – ছাত্র মজলিস সভাপতি হেফাজতের বিরুদ্ধে রাম-বামদের উস্কানি সহ্য করা হবে না: আল্লামা বাবুনগরী মুফতি মুহাম্মদ রহিমুল্লাহ কাসেমির ইন্তেকালে মুফতি ওমর ফারুক সন্ধীপীর শোক আলেমদের নামে বিষোদ্গার এবং ভাস্কর্যের নামে মানবমূর্তি নির্মাণ বন্ধ করুন:আল্লামা নূর হোসেন কাসেমী আলেমদের নামে বিষোদ্গার এবং ভাস্কর্যের নামে মানবমূর্তি নির্মাণ বন্ধ করুন: আল্লামা নূর হোসেন কাসেমী ভাস্কর্য নিয়ে হইচই, ছবি না তুললে হজের ভিসা হয়না, তাহলে হজের বিরুদ্ধে তারা ফতোয়া দিক: মতিয়া চৌধুরী ফেনীর হেফাজত নেতা মুফতি রহিমুল্লাহর আর নেই ধর্মের দোহাই দিয়ে উসকানিমূলক বক্তব্য বরদাস্ত করা হবে না: এমপি শিবলী ফটিকছড়িতে আমীরে হেফাজত আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরীকে গণ সংবর্ধনা প্রদান

জয়ের পর প্রথম ভাষণে যা বললেন বাইডেন

যুবকণ্ঠ ডেস্ক;

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার পর প্রথম ভাষণে বিভেদ ভুলে ঐক্যের ডাক দিয়েছেন
ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেন। জাতির উদ্দেশে বিজয়ী ভাষণে তিনি বলেছেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের বিভক্তি নয়, আমরা দলমত নির্বিশেষে সবাইকে নিয়ে ঐক্যবদ্ধ থাকতে চাই।’ এখন যুক্তরাষ্ট্রকে সারিয়ে তোলার সময় এসেছে বলেও জানান দেশটির ৪৬তম প্রেসিডেন্ট। আজ রোববার বিবিসি, সিএনএনসহ একাধিক আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের খবরে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের ডেলাওয়ার অঙ্গরাজ্যের নিজ শহর উইলমিংটনে জাতির উদ্দেশে বিজয়ী ভাষণ দেন বাইডেন। বাংলাদেশ সময় রোববার সকাল ৭টা ৪৫ মিনিটে ভাষণ শুরু করেন তিনি। নির্বাচনের সময় নানা উত্তেজনাপূর্ণ বক্তব্য, আচরণ ভুলে জাতি গঠনের তাগিদ দেন বাইডেন।

জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে ট্রাম্প-সমর্থকদের প্রতি তার সহযোগিতার কথা বলেন বাইডেন। তিনি বলেন, ‘যারা প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে ভোট দিয়েছেন, আপনাদের হতাশাটা আমি বুঝি। আমিও বেশ কয়বার পরাজিত হয়েছি। কিন্তু এখন একে অন্যকে সুযোগ দিতে হবে।’

সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেন, ‘আমাদের দুই পক্ষের আবারও একে অন্যের কথা শোনার সময় এখন।’

নির্বাচনের সময়কার সব ঘটনা ভুলে যাওয়ার আহ্বান জানিয়ে বাইডেন বলেন, ‘এখন সময় কর্কশ কথাবার্তা দূরে ঠেলে রাখার। উত্তেজনা কমিয়ে একজন আরেকজনের দিকে তাকাতে হবে। উন্নতি করতে হলে আমাদের বিপক্ষ দলকে শত্রু ভাবা বন্ধ করতে হবে।’ তিনি আরও বলেন, ‘তারা আমাদের শত্রু নয়, তারা আমেরিকান।’

ভাষণে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত করায় জনগণকে ধন্যবাদ জানান বাইডেন। তিনি বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের মানুষ জবাব দিয়েছে। তারা আমাদের পরিষ্কার বিজয় এনে দিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি (৭ কোটি ৪০ লাখ) ভোট পেয়ে আমরা জয়ী হয়েছি।’

প্রতিশ্রুতি দিয়ে বাইডেন বলেন, ‘আমি বিভেদ নয়, ঐক্য চাই। কোন রাজ্য নীল, কোন রাজ্য লাল, তা আমি দেখি না। আমি দেখি যুক্তরাষ্ট্রকে।’

বিশ্বের গণতন্ত্রের সূতিকাগার এ দেশটির প্রতি সারা বিশ্বের সম্মান ফেরানোরও প্রতিশ্রুতি ছিল বাইডেনের কণ্ঠে। তিনি বলেন, ‘আমি যুক্তরাষ্ট্রের মূল শক্তির পুনর্গঠন করতে চাই। মধ্যবিত্ত শ্রেণির মানুষকে টেনে তুলতে চাই। যুক্তরাষ্ট্রকে এমনভাবে গড়ে তুলতে চাই, যাকে সারা বিশ্ব সম্মান করবে।’

ভাষণে তার রানিংমেট কমলা হ্যারিসকে যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রথম নারী ভাইস প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ায় অভিনন্দন জানান বাইডেন।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হতে ইলেকটোরাল কলেজের ৫৩৮টি ভোটের মধ‌্যে ২৭০টি পেলেই চলে। সিএনএনের তথ‌্য অনুযায়ী, সর্বশেষ প্রাপ্ত ফলে জো বাইডেন জিতে নিয়েছেন ২৭৩টি ইলেকটোরাল ভোট। আর ট্রাম্প পেয়েছেন ২১৪টি ভোট।

এই পোষ্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন।

Design & developed by Masum Billah