রবিবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২১, ১১:৫৩ পূর্বাহ্ন

শিরোনামঃ
মাওলানা মামুনুল হককে ময়মনসিংহে আসতে বাধা: ইত্তেফাকুল উলামার প্রতিবাদ কর্মসূচি ঘোষণা সিরাজগঞ্জে বিএনপি সমর্থিত বিজয়ী কাউন্সিলরকে কুপিয়ে হত্যা নির্বাচিত হয়েই খুন হলেন বিএনপি সমর্থিত কাউন্সিলর গাইবান্ধায় ব্যালট ও সরঞ্জাম নিয়ে আসার সময় পুলিশের গাড়িতে অগ্নিসংযোগ নজরদারির পর ফ্রান্সে ৯টি মসজিদ বন্ধ ঘোষণা আল্লামা আহমদ শফী রহ. মৃত্যু : মিথ্যা মামলা দিয়ে একটি কুচক্রি মহল দেশে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির ষড়যন্ত্র করছে ৬০ পৌরসভায় ভোটগ্রহণ শেষ, চলছে গণনা ‘একটি কেন্দ্র ছাড়া আর কোথাও ধানের শীষের এজেন্ট দেখিনি’ পেটে পাথর বেঁধে মুসলমানরা সন্তানদের উচ্চশিক্ষা দিন: মাওলানা আরশাদ মাদানী মাওলানা আতাউল্লাহ হাফেজ্জীর সুস্থতা কামনায় আমীরে হেফাজত আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরীর দুআর আবেদন

ডিআইজি মিজানের দুর্নীতি মামলা ৬ মাসের মধ্যে নিষ্পত্তির নির্দেশ

সম্পদের তথ্য গোপনের অভিযোগে দুদকের মামলায় পুলিশের বরখাস্তকৃত ডিআইজি মিজানুর রহমানের ভাগ্নে কারাগারে থাকা এসআই মাহমুদুল হাসানকে জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে বিচারিক আদালতে মামলাটি ৬ মাসের মধ্যে নিষ্পত্তির নির্দেশ দিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে জামিন আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মোতাহার হোসেন সাজু। দুদকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান।

পরে আইনজীবী খুরশীদ আলম খান বলেন, আদালত মাহমুদুল হাসানকে জামিন দিয়েছেন। একইসঙ্গে বিচারিক আদালতে মামলাটি ছয় মাসের মধ্যে নিষ্পত্তি করতে বলেছেন।

অবৈধ সম্পদ অর্জন ও সম্পদের তথ্য গোপনের অভিযোগে গত বছরের ২৪ জুন দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয়ে (ঢাকা-১) কমিশনের পরিচালক মঞ্জুর মোর্শেদ বাদী হয়ে মামলা করেন। এতে ডিআইজি মিজান ছাড়াও তার স্ত্রী সোহেলিয়া আনার রত্না, ভাই মাহবুবুর রহমান ও ভাগ্নে মাহমুদুল হাসানকে আসামি করা হয়। মামলায় আসামিদের বিরুদ্ধে ৩ কোটি ২৮ লাখ ৬৮ হাজার টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জন ও ৩ কোটি ৭ লাখ ৫ হাজার টাকার সম্পদের তথ্য গোপনের অভিযোগ আনা হয়। মাহমুদুল হাসান ২০১৭ সালের ২৬ আগস্ট পুলিশের এসআই হিসেবে যোগ দেন।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, আসামি মিজানুর রহমান তার ভাগ্নে মাহমুদুল হাসানের নামে ২৪ লাখ ২১ হাজার ২২৫ টাকায় শুলশান-১ এর পুলিশ প্লাজা কনকর্ডে ২১১ বর্গফুট আয়তনের একটি দোকান বরাদ্দ নেন। মিজানুর রহমান নিজে নমিনি হয়ে তার ভাগ্নে মাহমুদুল হাসানের নামে ২০১৩ সালের ২৫ নভেম্বর একটি ব্যাংকে এফডিআর অ্যাকাউন্ট করে ৩০ লাখ টাকা জমা করেন। তবে দুদকের অনুসন্ধান চালু হওয়ার পর সে টাকা ভাঙিয়ে সুদে আসলে ৩৮ লাখ ৮৮ হাজার ৫৭ টাকা তুলে ফেলেন।

এই পোষ্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন।

Design & developed by Masum Billah