শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল ২০২১, ০৪:৫৪ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম:
শিশু বলৎকারের অভিযোগে নাপিত গ্রেফতার ছাত্রলীগ নেতার মামলায় আ’লীগ নেতা গ্রেফতার আমাদের জন্যই লকডাউন, আমি সবাইকে নিয়ে জেলে যাব, তবুও লকডাউন তুলে নিন : বাবুনগরী হেফাজতের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা খালেদ সাইফুল্লাহ আইয়ুবী গ্রেপ্তার মদপানে ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদকসহ ৪ জনের মৃত্যু, আশঙ্কাজনক আরও অনেক রাজশাহীতে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুরের বিরুদ্ধে মামলা করলেন যুবলীগ নেতা হেফাজতের আরও দুই শীর্ষস্থানীয় নেতা গ্রেপ্তার মাছ ছিনতাই : থানায় অভিযোগ ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে ২০১৩ সালের ৫ মে শাপলা ট্রাজেডির মামলায় আল্লামা খুরশেদ আলম কাসেমি গ্রেফতার! ২০১৩ সালের ৫ ই মের মামলায় মুফতি সাখাওয়াত ও মাওলানা আফেন্দির ২১ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর

আড়ংয়ের পণ্য বর্জনের ডাক দিলেন আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী

দেশের সর্ববৃহৎ অরাজনৈতিক ধর্মীয় সংগঠন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের আমীর শায়খুল হাদীস আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী বলেছেন,দাঁড়ি ইসলামের অন্যতম শি’আর বা প্রতীক। দাড়ি পুরুষের শোভা। পুরুষের সৌন্দর্য। সমস্ত নবী-রাসুল দাড়ি রেখেছেন। দাড়ি ইসলামের স্বতন্ত্র ও মৌলিক একটি বিধান। দাড়ি রাখা ওয়াজিব। রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম দাড়ি রাখার ব্যাপারে আদেশ করেছেন। দাড়িকে মর্যাদা প্রদান করতে হবে। যারা দাড়ি রাখে তাদের হেয় করা যাবে না। সম্প্রতি দাড়ি থাকার কারণে ইমরান হোসাইন ইমনকে চাকুরী না দিয়ে অমার্জনীয় অপরাধ করেছে আড়ং কর্তৃপক্ষ। এর প্রতিবাদে আমরা আড়ংয়ের সমস্ত পণ্য বর্জন করতে হবে। যারা রাসূলের সুন্নাহ দাড়িকে হেয় করে তাদের কোন পণ্য মুসলমান ক্রয় করতে পারে না।

গতকাল রাত ১০টায় মেখল ইসলাম প্রচার সংস্থার তাফসীরুল কুরআন মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

দাড়ি থাকার কারণে চাকুরী না দেয়াটা মহানবী(সঃ)এর আদর্শের সাথে যুদ্ধ ঘোষণার শামিল উল্লেখ করে আল্লামা বাবুনগরী বলেন,দাড়ি থাকার কারণে চাকুরী না দিয়ে কার্যত মহানবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম-এর সুন্নাহকে হেয় করেছে এবং রাসুলের আদর্শের সাথে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে আড়ং কর্তৃপক্ষ। এটা কখনো বরদাশত করা যায় না। এরজন্য অবশ্যই তাদেরকে নিঃশর্ত ক্ষমা চাইতে হবে। ৯০% মুসলমানের দেশে দাড়ি থাকার কারণে ইন্টারভিউতে পাশ করা সত্বেও একজন মুসলমানকে চাকুরী দেবে না তা কখনো মেনে নেওয়া যায় না।

ভারতে কুরআনের আয়াত বাতিলের রিট প্রসঙ্গে হেফাজত আমীর বলেন,মানব জাতির মুক্তির সনদ পবিত্র কুরআনের আয়াত বাতিলের রিট করার অপরাধে কুখ্যাত কাফের শিয়া ওয়াসিম রিজভীকে ফাঁসি দিতে হবে। এটা বিশ্বের পৌনে দুইশো কোটি মুসলমানের দাবী। এই কুলাঙ্গারকে ফাঁসি না দেওয়া পর্যন্ত মুসলিমবিশ্ব শান্ত হবে না। এর বিরুদ্ধে আমাদের শান্তিপূর্ণ জোরদার আন্দোলন চলবেই।

তিনি আরো বলেন, ভারতের আদালতে কোন ন্যায় বিচার নেই। ন্যায় বিচার থাকলে আদালত কখনো কুরআন বিরোধী ভিত্তিহিন রিট গ্রহণ করতো না। ওয়াসিম রিজভীর দায়ের করা রিট গ্রহণ করে ভারতের আদালত প্রকাশ্যে ইসলামের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে। এই রিট খারিজের ব্যবস্থা না করে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও ওয়াসিম রিজভীকে মৌন সমর্থন দিয়েছে। এর জন্য ভারতকে মুসলিম বিশ্বের কাছে ক্ষমা চাইতে হবে।কুখ্যাত ওয়াসিম রিজভী কুরআনে বর্ণিত জিহাদের আয়াত নিয়ে আপত্তি তুলেছে,আমাদের মনে রাখতে জিহাদ ইসলামের অন্যতম ফরজ বিধান। জিহাদ সন্ত্রাস নয়, সন্ত্রাস জিহাদ নয়। জিহাদ জালেমের বিরুদ্ধে মজলুমের লড়াই,জিহাদ হলো অন্যায় অবিচারের মোকাবেলায় ন্যায়ের লড়াই। জিহাদ শান্তি,জিহাদ মুক্তি। জিহাদ হলো জুলুম নির্যাতন আর সন্ত্রাস দমনের মাধ্যম। উপযুক্ত পরিবেশ হলে আল্লাহর জমিনে আল্লাহর দ্বীন প্রতিষ্ঠা করতে আমাদেরকে জিহাদ করতে হবে।

নাজির হাট বড় মাদ্রাসার পরিচালক মুফতী হাবিবুর রহমান কাসেমীর সভাপতিত্বে মাহফিলে আরো বক্তব্য রাখেন বাবুনগর মাদ্রাসার প্রধান মুফতি মাওলানা মুফতী মাহমুদ হাসান,আল্লামা আজিজুল হক আল মাদানী,প্রফেসর ড. আ.ফ.ম. খালেদ হোসাইন,মাওলানা হাসান জামিল,মাওলানা মাহমুদুল হাসান ফতেহপুরী,মাওলানা আজিজুল হক জালালী প্রমূখ।

এতে সংবর্ধেয় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আল মানাহিলব ওয়েলফেয়ার এর চেয়ারম্যান মাওলানা হেলালুদ্দীন বিন জমির উদ্দিন।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved ©2020 jubokantho24.com
Website maintained by Masum Billah