মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ১২:২৪ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম:
রাজধানীর রামপুরায় বাসের চাপায় আরেক স্কুল ছাত্রের মৃত্যু,৮ বাসে আগুন দিয়েছে বিক্ষুব্ধ জনতা চেয়ারম্যান পদে জামানত হারিয়ে এবার এমপি নির্বাচন করতে চান ‘ভিক্ষুক’ মুনসুর করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট: এইচএসসি পরীক্ষা হবে কিনা জানালেন শিক্ষামন্ত্রী ১৪ মাসে হেফাজতের শীর্ষ চার নেতার ইন্তিকাল ভারতের ‘ওমিক্রন ঝুঁকিপূর্ণ’ দেশের তালিকায় বাংলাদেশ ওমিক্রন: দক্ষিন আফ্রিকা থেকে আসা ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ৭ ব্যক্তির বাড়িতে লাল পতাকা হেফাজতের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব হলেন মাওলানা সাজিদুর রহমান আল্লামা নুরুল ইসলামের জানাজার নামাজ সম্পন্ন আল্লামা নুরুল ইসলামের ইন্তেকালে ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের শোক প্রকাশ যে কারণে হাটহাজারিতে হচ্ছে আল্লামা নূরুল ইসলাম জিহাদির দাফন

আফগানিস্তানের তিন ট্রিলিয়ন খনিজ সম্পদ চুরি করা আর হলো না আমেরিকার! মাওলানা যুবায়ের আহমদ

আফগানিস্তানের মাটির নিচে প্রায় তিন ট্রিলিয়ন ডলার মূল্যের উত্তোলনযোগ্য খনিজ সম্পদ। বহু দুর্লভ এসব খনিজ মুঠোফোন, টিভি, ফাইবার অপটিক তৈরির কাজে লাগে। আমেরিকা ভেবেছিল, তা – লি – বা – নদের হারিয়ে এ খনিজ সম্পদের রাজত্ব তাদের হাতে নেবে। কিন্তু তা – লি – বা – নের কারণে তাতে হাত দিতে পারেনি। এমনকি তা – লি – বা – নকে সামাল দিতেই তাদের ২০টি বছর গেল। যুক্তরাষ্ট্র এবং তাদের সৈনিকরা ক্লান্ত হয়ে পড়েছে। ন্যাটো জোটের শীর্ষ জেনারেল অস্টিন স্কট মিলার গতকাল সোমবার পদত্যাগ করেছে। তাদের অর্থনীতিও ক্লান্ত। আফগানিস্তানে আমিরিকার সামরিক ব্যয় হয়েছে ৭৭৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। দুদিন পরই তা – লি – বা – ন সরকার গঠন করবে -তা দেখতে পেয়ে বর্তমান আফগান সরকারের বাহিনীও অস্ত্রসহ দলে দলে যোগ দিচ্ছে তা – লি – বা – নে।
তা – লি – বা – নের কারণেই যুক্তরাষ্ট্র আফগানিস্তানের খনিজ সম্পদ দখল করতে পারেনি। তার মানে তা – লি – বা – নই আফগানিস্তানের প্রতি ইঞ্চি মাটি ও এর খনিজ সম্পদের পাহারাদার। সবচেয়ে বড় কথা হলো, দখলদার আমেরিকাকে রাতের আধারে আফগান ছেড়ে চলে যেতে বাধ্য করেছে কারা? তা – লি – বা – ন। যারা তাদের ভূমি থেকে আমেরিকার মতো দখলদারদের সরিয়ে দিতে পারে, তাদের হাতেই একটি দেশের সার্বভৌমত্ব নিরাপদ। আমেরিকান প্রভুদের পরাজয়ে বেশিরভাগ বাংলাদেশি মিডিয়ায় শোকের ছায়া। অবশ্য ’খনিজ দখলের যুদ্ধও শুরু হলো আফগানিস্তানে’ শিরোনামে দৈনিক প্রথম আলোর আজকের কলামটি ভালো লেগেছে। অনেক মিডিয়াই এখন তা – লি – বা – নকে জঙ্গী বলার ক্ষেত্রে সতর্ক অবস্থানে। কী বুঝলেন? চীন ও যুক্তরাষ্ট্র যেখানে তা – লি – বা – নের সঙ্গে হাত মেলাচ্ছে, সেখানে উচ্ছিষ্টভোগী মিডিয়াগুলোর স্বর তো নরম হবেই। বাস্তবতা কোন দিকে যাচ্ছে তা এখন স্পষ্ট।
বিশ্বের শক্তিধর রাষ্ট্রগুলো দেখছে, এ খনিজ সম্পদ থেকে কোনোরকম উপকৃত হতে হলে হুজুরমার্কা তা – লি – বা – নের হাতেই হাত রাখতে হবে। অবাক হবেন, শুধু চীন নয়, যুক্তরাষ্ট্রও এখন তা – লি – বা – নের সঙ্গে কাজ করতে চায়। তা – লি – বা – ন যদি সতর্কতার সঙ্গে কাজ করতে পারে, আফগানিস্তান হবে পৃথিবীর অন্যতম বৃহৎ অর্থনীতির দেশ।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved ©2020 jubokantho24.com
Website maintained by Masum Billah