শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:১৯ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম:
ভোলায় রাসূল সা.-কে অবমাননাকারী গৌরাঙ্গকে অবিলম্বে গ্রেফতার করতে হবে: হেফাজত বঙ্গবন্ধু ছিলেন সব দিকেই দক্ষ একজন রাষ্ট্রনায়ক: আ ক ম মোজাম্মেল ইভ্যালিতে প্রতারিতরা কি টাকা ফেরত পাবেন? ভারতে প্রতি ২৪ ঘণ্টায় ৭৭টি ধর্ষণের ঘটনা ঘটছে ‘তালেবান ক্ষমতায় আসার পর এখন আর ঘুষ দিতে হয় না’ ভোলায় মহানবীকে অবমাননার প্রতিবাদে বিক্ষোভ-সমাবেশ আমি প্রেসিডেন্ট হলে ফ্রান্সে মুহাম্মদ নাম নিষিদ্ধ করা হবে এহসান গ্রুপে ৩০ লাখ টাকা খুইয়ে স্ট্রোক করে বৃদ্ধের মৃত্যু দেশকে রক্ষা করতে একটি শক্তিশালী সেনাবাহিনী গঠন করব: আফগান সেনাপ্রধান ৯৬ সাল থেকে এ পর্যন্ত ১০ লাখ মানুষকে ঘর তৈরি করে দিয়েছি: প্রধানমন্ত্রী

ছেলেকে বাঁচাতে আইসিইউ ছেড়ে মারা গেলেন মা

যুবকণ্ঠ ডেস্ক:

চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে করোনা ওয়ার্ডের ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে (আইসিইউ) বেড ছেলের জন্য ছেড়ে দিয়েছেন এক মা। সেই আইসিইউ বেডে এখন ছেলের চিকিৎসা চলছে। তবে বেঁচে নেই মা।

মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) রাতে ওই হাসপাতালে এ মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে। বুধবার (২৮ জুলাই) রাতে হাসপাতালের আইসিইউ বেডের ইনচার্জ ডা. রাজদ্বীপ বিশ্বাস এসব তথ্য জানান।

জানা গেছে, চট্টগ্রামের সিএনবি কলোনী এলাকার ৬৫ বছর বয়সী মা ও ৩৮ বছর বয়সী ছেলে করোনা আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হয়েছিলেন চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে। মায়ের অবস্থা সংকটাপন্ন হওয়ায় ২২ জুলাই তাকে আইসিইউতে নিয়ে যান চিকিৎসকরা। ছেলে ভর্তি ছিলেন সাধারণ ওয়ার্ডে। ধীরে ধীরে ছেলের অবস্থাও খারাপ হতে থাকে। তারই একপর্যায়ে মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) আইসিইউয়ের প্রয়োজন হয় ছেলের। কিন্তু চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের ১৮টি আইসিইউ বেডেই রোগী ভর্তি তখন। ছেলের জন্য আইসিইউ না পাওয়ার সংবাদ চলে যায় আইসিইউতে ভর্তি থাকা মায়ের কানে। তাতেই ছটফট করতে থাকেন মা। নিজের হাতে লাইফ সাপোর্টের সরঞ্জাম খুলে ছেলেকে আইসিইউতে আনতে চিকিৎসকদের ইশারা দেন বৃদ্ধ মা। হাসপাতালের দায়িত্বরত চিকিৎসকরা বলেন, শত চেষ্টা করেও মাকে বোঝাতে পারেনি আমরা। বাধ্য হয়ে মাকে নামিয়ে ছেলেকে তোলা হয় আইসিইউতে। এর কিছুক্ষণ পরেই মা মারা যান।

চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের সিনিয়র কনসালটেন্ট ডা. আব্দুর রব আরটিভি নিউজকে বলেন, মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) রাতে বৃদ্ধ মা ছেলের জন্য আইসিইউ ছেড়ে দিয়েছেন। এই ঘটনাটি আমাদের চোখের সামনে ঘটেছে। কিন্তু আমরা নিরূপায়। মা বেঁচে নেই।

তিনি আরও জানান, পরিবারের সিদ্ধান্ত মোতাবেক মাকে আইসিসি থেকে নামিয়ে সন্তানকে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। আইসিসি থেকে সরানোর কিছুক্ষণ পরেই মা মারা যায়। বর্তমানে ছেলে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছেন।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved ©2020 jubokantho24.com
Website maintained by Masum Billah