বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ০২:৪৯ পূর্বাহ্ন

আলেম ওলামাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে: হেফাজত আমীর

যুবকণ্ঠ ডেস্ক:

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের আমীর আল্লামা শাহ মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরী বলেছেন, বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রচারিত খবর থেকে জানতে পেরেছি, দেশের সম্মানিত আলেম ওলামা ও দ্বীনের দাঈদেরকে বিভিন্নভাবে হয়রানি করা হচ্ছে। অনেকে বিশেষ কোন গোষ্ঠীর ষড়যন্ত্রের শিকার হয়ে অনিরাপত্তায় ভুগছেন। আবার কোথাও অজ্ঞাতপরিচয় কিছু লোকেরা দ্বীনের দাঈ তথা আলেম সমাজকে অপ্রত্যাশিত নিয়মে গভীর রাতে ঘর থেকে উঠিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। এসব ঘটনা নিন্দনীয়। আমি এর তীব্র নিন্দা জানাই। অনতিবিলম্বে আলেমদের ওপর এমন নির্যাতন বন্ধ করতে হবে। আলেম ওলামাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে

আজ বুধবার (২৯ সেপ্টেম্বর) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি এসব কথা বলেন।

হেফাজত আমীর আল্লামা শাহ মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরী বলেন, সম্প্রতি কিছু আলেমদেরকে বিভিন্নভাবে গভীর রাতে তাদের নিজ বাড়ি থেকে বা অন্য কোন স্থান থেকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে বলে খবর পাওয়া যাচ্ছে। একটি স্বাধীন গণতান্ত্রিক দেশে এরূপ ঘটনা অনুচিত বলে আমরা মনে করি। কারণ দেশে প্রশাসন, আদালত, কোর্টকাচারী ও বিচার বিভাগ রয়েছে। কারো বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ থাকলে তা যাচাই বাছাই এবং সুষ্ঠ তদন্ত করে তার যথাযোগ্য বিচার করার সুযোগ রয়েছে। তাহলে এভাবে ভিন্ন কায়দায় জনগণের মনে হতাশা ও আতঙ্ক সৃষ্টিকারী পদ্ধতির দিকে যেতে হবে কেন?। একটি স্বাধীন গণতান্ত্রিক দেশে এসকল অগণতান্ত্রিক নিয়মকে শক্ত হাতে দমন করা না গেলে দেশের মধ্যে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হতে পারে। জনমনে ক্ষোভ ও হতাশা সৃষ্টি হতে পারে। কোন আত্মগোপনকারী শত্রুগোষ্ঠী ইসলাম ও দেশের বিরুদ্ধে সুযোগ নিতে পারে। তাই আমরা সরকারের কাছে অনুরোধ রাখছি যেন জনমনে ভয়-ভীতি ও আতঙ্ক সৃষ্টিকারী কায়দায় কোন আলেম বা সুনাগরিককে ধর-পাকড় করা না হয়। অভিযুক্ত ব্যক্তিকে, সে যেই হোক না কেন, আইন অনুযায়ী পুলিশ হেফাজতে নিয়ে বিচারাধীন করা হোক।

হেফাজত আমীর বলেন, আমরা বলছি না যে, আলেম ওলামারা সবাই নিষ্পাপ বা সকল দোষ ও অভিযোগমুক্ত। হতে পারে তাদের মধ্যেও কেউ অপরাধী কিংবা দোষী থাকবেন। কিন্তু আমাদের দাবী হলো, অভিযুক্তদেরকে দেশের সাধারণ নিয়মে বিচারের আওতায় আনলে জনগণ স্বস্তি পাবে।

আল্লামা শাহ মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরী বলেন, আমরা এর সাথে বলতে চাই, গ্রেফতারকৃত আলেম ওলামাদের সুষ্ঠু তদন্ত করে তাদের মুক্তির ব্যবস্থা করা হোক। আলেম ওলামারা এদেশের বা সরকারের শত্রু নন। বরং তারা দেশ ও দশের কল্যাণে সর্বদা এগিয়ে থাকেন।

তিনি বলেন, মনে রাখতে হবে, শেষ বিচারের দিন আমাদের সবাইকে আল্লাহ রাব্বুল আলামীন এর সামনে দাঁড়াতে হবে, তখন বান্দাদের এক একটি বিষয়ের হিসাব নেওয়া হবে। তখন সবার সব কিছু আল্লাহর সামনে প্রকাশ পাবে। অনেকে সেদিন আল্লাহর সামনে বেশি লজ্জিত হবেন। সুতরাং আমরা যেন এমন কোন কাজ না করি যাতে আল্লাহর সামনে লজ্জিত হতে হয়।

হেফাজত আমীর বলেন, আল্লাহ তাআলা যেন আমাদের দেশ ও সমাজকে সব ধরণের বিপদাপদ, ষড়যন্ত্র ও সংকট থেকে রক্ষা করুক। এবং আলেম ওলামা সহ সর্বস্তরের জনগণকে শান্তিপূর্ণভাবে জীবন যাপন করার তৌফিক দান করুক। আমীন।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved ©2020 jubokantho24.com
Website maintained by Masum Billah