শনিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২৩, ০৩:৫১ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
আওয়ামী লীগকে রাজপথে দেখে ভীত বিএনপি: তথ্যমন্ত্রী বাংলাদেশে প্রভাব বিস্তারে ৩ পরাশক্তি লড়ছে কুরআন পোড়ানোর প্রতিবাদে সুইডিশ পণ্য বর্জনের আহ্বান হেফাজতের ‘বাবার পরিচয়হীন সন্তানের অভিভাবক মা হবে’ মর্মে রায় দেশের ধর্ম ও সংষ্কৃতির সাথে সাংঘর্ষিক আওয়ামী লীগ মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করে: নানক প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে ছাত্র জমিয়ত ঢাকা মহানগর উত্তরের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত ৪ দিন ধরে হাসপাতালে ভর্তি পরিকল্পনামন্ত্রী কাল পাঠ্যবইয়ের ভুল নিয়ে শিক্ষামন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন দেশের আকাশে পবিত্র রজব মাসের চাঁদ দেখা গেছে আমরা চাই দেশে সত্যিকার ইসলামের জ্ঞান চর্চা হোক: প্রধানমন্ত্রী

মসজিদে নামাজরত মুসুল্লিকে কুপিয়ে হত্যাচেষ্টাকারী বিমানবন্দরে গ্রেপ্তার

কুমিল্লার বুড়িচংয়ে শবেমেরাজের রাতে নামাজরত মুসুল্লিকে কুপিয়ে হত্যাচেষ্টা মামলার প্রধান আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। দেশ ছেড়ে পালানোর সময় তাকে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে গ্রেপ্তার করে এয়ারপোর্ট আর্মড পুলিশ।

আজ মঙ্গলবার (১ মার্চ) রাত সাড়ে ৯টায় এ তথ্য জানায় এয়ারপোর্ট আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়্যান।

এয়ারপোর্ট এপিবিএন জানায়, মসজিদে এক যুবককে উপর্যুপরি কুপিয়ে হত্যাচেষ্টা মামলার প্রধান আসামি রফিকুল ইসলামকে (৩৫) কুয়েতে পালানোর চেষ্টাকালে বিমানবন্দর থেকে গ্রেপ্তার করেছে এয়ারপোর্ট আর্মড পুলিশ।

এয়ারপোর্ট আর্মড পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জিয়াউল হক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, গত ২৮ ফেব্রুয়ারি শবেমেরাজের রাতে সোলেমান (২৮) নামে এক যুবককে বুড়িচং উপজেলার নাজিরাবাজার বাইতুর রহমান জামে মসজিদে নামাজরত অবস্থায় একাধিক ব্যক্তি সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় হত্যার উদ্দেশ্যে ধারালো অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে কুমিল্লা কুচাইতুলি সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ বিষয়ে বুড়িচং থানায় আপন দুই ভাই মো. রফিক এবং মো. সুমনকে যথাক্রমে ১ এবং ২ নম্বর আসামি করে এবং অজ্ঞাতনামা আরও কয়েকজনকে আসামি করে বুড়িচং থানায় আজ (১ মার্চ) মামলা দায়ের করা হয়।

ঘটনার পরেই প্রধান আসামি কুয়েত প্রবাসী মো. রফিক (৩৫) কুয়েতে পালানোর চেষ্টায় ঢাকায় আসেন এবং আজ মঙ্গলবার (১ মার্চ) বিকেলে বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে কুয়েতে ফেরত যাওয়ার পরিকল্পনা করেন। কিন্তু আগে থেকেই সতর্ক অবস্থায় থাকা এয়ারপোর্ট আর্মড পুলিশের গোয়েন্দা দল বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের চেকইন কাউন্টার থেকে তাকে আটক করেন। পরবর্তীতে কুমিল্লা জেলা পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করে প্রধান অভিযুক্ত রফিকের পরিচয় সম্পর্ক নিশ্চিত হয় এয়ারপোর্ট পুলিশ।

অভিযুক্তের নামে থাকা মামলায় রফিককে কুমিল্লা জেলা পুলিশের জিম্মায় হস্তান্তরের প্রক্রিয়া শুরু করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জিয়াউল হক। মামলার ২ নাম্বার আসামি মো. সুমন বর্তমানে দেশে অবস্থান করা একজন কুয়েত প্রবাসী। তাকেও গ্রেপ্তারের সর্বোচ্চ চেষ্টা চালানো হচ্ছে বলে জানিয়েছেন এই পুলিশ কর্মকর্তা।

নিউজটি শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন

All rights reserved © Jubokantho24.com