শনিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২৩, ০৩:৩৭ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
আওয়ামী লীগকে রাজপথে দেখে ভীত বিএনপি: তথ্যমন্ত্রী বাংলাদেশে প্রভাব বিস্তারে ৩ পরাশক্তি লড়ছে কুরআন পোড়ানোর প্রতিবাদে সুইডিশ পণ্য বর্জনের আহ্বান হেফাজতের ‘বাবার পরিচয়হীন সন্তানের অভিভাবক মা হবে’ মর্মে রায় দেশের ধর্ম ও সংষ্কৃতির সাথে সাংঘর্ষিক আওয়ামী লীগ মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করে: নানক প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে ছাত্র জমিয়ত ঢাকা মহানগর উত্তরের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত ৪ দিন ধরে হাসপাতালে ভর্তি পরিকল্পনামন্ত্রী কাল পাঠ্যবইয়ের ভুল নিয়ে শিক্ষামন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন দেশের আকাশে পবিত্র রজব মাসের চাঁদ দেখা গেছে আমরা চাই দেশে সত্যিকার ইসলামের জ্ঞান চর্চা হোক: প্রধানমন্ত্রী

কারাগারে নারী কয়েদির মৃত্যুতে জেল সুপারের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা

টাঙ্গাইল কারাগারে এক নারী কয়েদির মৃত্যুর অভিযোগে উঠেছে। এ ঘটনায় নিহতের স্বামী টাঙ্গাইল কারাগারের জেল সুপারসহ অন্যান্য কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে টাঙ্গাইল আদালতে মামলা দায়ের করেছেন। মঙ্গলবার বিকালে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবে বঙ্গবন্ধু অডিটোরিয়ামে সংবাদ সম্মেলনে এমন অভিযোগ করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন নিহতের মেয়ে সোনালী।

তিনি বলেন, আমার মা নাদীয়া জাহান একজন ডায়াবেটিক ও কিডনী রোগে আক্রান্ত। সম্প্রতি গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন তিনি। টাঙ্গাইলের সখীপুর আমলী আদালতে সিআর ৩১২/২০২১ মামলায় তিনি ২নং আসামি। তাকে হয়রানি করার জন্য এ মামলা জড়ানো হয়েছে। আদালতের সমন পেয়ে চলতি বছরের ৪ এপ্রিল আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করেন। এ সময় তিনি তার গুরুতর শারীরিক অসুস্থতার বিষয়ে সংশ্লিষ্ট চিকিৎসকের সকল রিপোর্ট আদালতে দাখিল করেন।

আদালতের বিচারক উভয় পক্ষের শুনানি শেষে নাদীয়া জাহান শেলীর জামিন না-মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। এই জামিন না মঞ্জুর এর আদেশে বিচারক উল্লেখ করেন ‘আসামি পক্ষের দাখিলী কাগজপত্র পর্যালোচনায় দেখা যায় যে, আসামি অসুস্থ। আসামির বয়স ৪০ বছর। এমতাবস্থায় আসামির চিকিৎসার সুব্যবস্থা করার জন্য জেল সুপার, জেলা কারাগার নির্দেশনা প্রদান করা হলো।’

 

কিন্তু জেল সুপার আদালতের এই নির্দেশনা পালন করেননি। আদালতের নির্দেশ অমান্য করে টাঙ্গাইল জেলা কারাগারের জেল সুপার আব্দুল্লাহ আল মামুন ও ডেপুটি জেলারসহ অন্যান্য কর্মকর্তাদের যোগসাজশে আমার মাকে চিকিৎসার সুব্যবস্থা না করে সাধারণ কয়েদী হিসেবে জেনারেল ওয়ার্ডে ফেলে রাখেন। এ অবস্থায় চিকিৎসার অভাবে গত ৮ এপ্রিল কারাগারে মৃত্যুবরণ করেন।

তিনি আরও বলেন, টাঙ্গাইল কারাগারের জেল সুপারসহ অন্যান্য কর্মকর্তাদের অবহেলার কারণে আমার মায়ের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় ১৯ এপ্রিল জেলা সুপার ও ডেপুটি জেল সুপারসহ অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে টাঙ্গাইল আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে। পরে আদালতের বিচারক পুলিশ সুপারকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিল করার নির্দেশনা দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমরা এ ঘটনায় জড়িত সকলকেই গ্রেফতারের দাবি করছি।

অভিযোগের প্রসঙ্গে টাঙ্গাইল কারাগারের জেল সুপার আব্দুল্লাহ আল মামুনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি। আজকের সংবাদ সম্মেলনে নিহতের স্বামী মিনহাজ উদ্দীন, ছেলে হাসান ও হোসাইন, বোন মুক্তা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন

All rights reserved © Jubokantho24.com