শনিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২৩, ০২:৩৬ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
আওয়ামী লীগকে রাজপথে দেখে ভীত বিএনপি: তথ্যমন্ত্রী বাংলাদেশে প্রভাব বিস্তারে ৩ পরাশক্তি লড়ছে কুরআন পোড়ানোর প্রতিবাদে সুইডিশ পণ্য বর্জনের আহ্বান হেফাজতের ‘বাবার পরিচয়হীন সন্তানের অভিভাবক মা হবে’ মর্মে রায় দেশের ধর্ম ও সংষ্কৃতির সাথে সাংঘর্ষিক আওয়ামী লীগ মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করে: নানক প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে ছাত্র জমিয়ত ঢাকা মহানগর উত্তরের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত ৪ দিন ধরে হাসপাতালে ভর্তি পরিকল্পনামন্ত্রী কাল পাঠ্যবইয়ের ভুল নিয়ে শিক্ষামন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন দেশের আকাশে পবিত্র রজব মাসের চাঁদ দেখা গেছে আমরা চাই দেশে সত্যিকার ইসলামের জ্ঞান চর্চা হোক: প্রধানমন্ত্রী

‘জনসংখ্যার হিসাব পছন্দ না হলে সন্তান পয়দা করতে থাকুক’

যুবকণ্ঠ ডেস্ক:

জনশুমারি ও গৃহগণনার মাধ্যমে প্রাপ্ত জনসংখ্যার হিসাব যাদের পছন্দ হয়নি, তাদের সন্তান পয়দা করে জনসংখ্যা বাড়াতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সরকার তাদের খাবার দেবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

সোমবার (১ আগস্ট) জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন কৃষক লীগের রক্তদান কর্মসূচির উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু ভবনের সামনে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী তাঁর সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে ভার্চ্যুয়ালি সংযুক্ত হন।

বর্তমান বৈশ্বিক সংকট মোকাবিলায় সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আমি আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের বলবো—দেশবাসীর কাছে যেতে হবে, তাদের আহ্বান জানাতে হবে। আমাদের খাদ্য আমরা উৎপাদন করব। আমরা কৃষকদের ভর্তুকি দিচ্ছি। কৃষকদের‌ উপকরণ কার্ড আমরা দিয়ে দিয়েছি, তারা ন্যায্য মূল্যে সার কিনতে পারছে। দশ টাকার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খুলে তার মাধ্যমে আমরা ভর্তুকি পাঠাই। কৃষির যান্ত্রিকীকরণের জন্য আমরা ৭০ ভাগ পর্যন্ত তাদের বিশেষ ভর্তুকি দিচ্ছি। শিল্প গড়ে তোলার ব্যবস্থা আমরা নিয়েছি। স্বাক্ষরতার হার আমরা বৃদ্ধি করেছি। দেশের প্রত্যেকটা মানুষের মধ্যে আমরা একটা চেতনা উদ্বুদ্ধ করেছি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আজ আমাদের জনসংখ্যা যেমন সাড়ে ১৬ কোটির উপরে, সেটাও কারো কারো পছন্দ হচ্ছে না। আমি তাদের জিজ্ঞাসা করব যে, তাদের হিসাবটা পছন্দ হয় না কেন? তাহলে নিজেরাই সন্তান পয়দা দিতে থাকুক, জনসংখ্যা বাড়াতে থাকুক‌। যাদের পছন্দ হয় না, তারা সেটা করুক‌। আমরা খাবার দেবো, কোনো আপত্তি নেই। কিন্তু আমরা চাই প্রত্যেকটা পরিবার যেন সুখি পরিবার হয়, সুন্দরভাবে বাঁচতে পারে, প্রতিটি ছেলে-মেয়ে লেখাপড়া শিখতে পারে।

নিউজটি শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন

All rights reserved © Jubokantho24.com