শনিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২৩, ০৩:৪৭ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
আওয়ামী লীগকে রাজপথে দেখে ভীত বিএনপি: তথ্যমন্ত্রী বাংলাদেশে প্রভাব বিস্তারে ৩ পরাশক্তি লড়ছে কুরআন পোড়ানোর প্রতিবাদে সুইডিশ পণ্য বর্জনের আহ্বান হেফাজতের ‘বাবার পরিচয়হীন সন্তানের অভিভাবক মা হবে’ মর্মে রায় দেশের ধর্ম ও সংষ্কৃতির সাথে সাংঘর্ষিক আওয়ামী লীগ মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করে: নানক প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে ছাত্র জমিয়ত ঢাকা মহানগর উত্তরের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত ৪ দিন ধরে হাসপাতালে ভর্তি পরিকল্পনামন্ত্রী কাল পাঠ্যবইয়ের ভুল নিয়ে শিক্ষামন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন দেশের আকাশে পবিত্র রজব মাসের চাঁদ দেখা গেছে আমরা চাই দেশে সত্যিকার ইসলামের জ্ঞান চর্চা হোক: প্রধানমন্ত্রী

কাজাখস্তানে মধ্য এশিয়ার সবচেয়ে বড় মসজিদের উদ্বোধন

এ বি সিদ্দীক

কাজাখস্তানের রাজধানীতে মধ্য এশিয়া অঞ্চলের সবচেয়ে বড় মসজিদের উদ্বোধন করা হয়েছে। মসজিদটির নাম নূর-সুলতান মসজিদ। গত শুক্রবার (১২ আগস্ট) দেশটির সাবেক রাষ্ট্রপতি রসুলতান নাজারবায়েভ মসজিদটি উদ্বোধন করেন।

উদ্বোধনকালে সাবেক প্রেসিডেন্ট নাজারবায়েভ বলেন, এই পবিত্র শুক্রবার আমরা কাজাখের রাজধানীতে সুন্দর মসজিদটির দুয়ার খুলে দিয়েছি। এটা শুধু রাজধানী শহরের জন্যই নয়, সব মানুষের জন্য, মুসলমানদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। আমি আল্লাহকে ধন্যবাদ জানাতে চাই কারণ আমি এই মসজিদটির নির্মাণ শুরু করেছিলাম।

তিনি আরও বলেন, দেশ স্বাধীন হওয়ার পর থেকে রাজধানীতে অনেক নতুন ভবন নির্মিত হয়েছে। “স্বাধীনতার পর আমরা দেশের সব অঞ্চলে মসজিদ করেছি। আল্লাহ যেন এই মসজিদগুলোতে করা সকল আমল কবুল করেন ।”

কাজাখস্তানে সংবাদ সংস্থা কাজইনফরমের প্রতিবেদনে বলা হয়, এটি বিশ্বের ১০টি বৃহত্তম মসজিদের মধ্যে একটি, যেটিতে ২ লাখ ৩৫ হাজার মানুষের একসঙ্গে নামাজ আদায় করার সুযোগ রয়েছে।

প্রায় তিন বছর আগে নাজারবায়েভের উদ্যোগে মসজিদটির নির্মাণকাজ শুরু হয়। মসজিদটি নির্মাণ করা হয়েছে ১০ হেক্টর জায়গার ওপর, যার মধ্যে ভবনটি ৬৮ হাজার ৬২ বর্গমিটার এলাকাজুড়ে বিস্তৃত। মসজিদের নকশা করেছেন তাজিকিস্তান এবং কাতারের পেশাদার স্থাপত্যকুশলীরা। নকশায় পুরনো মুসলিম ঐতিহ্যের ছাপ রয়েছে। চারটি বড় মিনার, একটি বড় প্রধান গম্বুজ এবং ২০টি ছোট গম্বুজ রয়েছে। মসজিদটির প্রধান গম্বুজের উচ্চতা প্রায় ৯০ মিটার এবং এর ব্যাস ৬২ মিটার। চারকোণায় থাকা চারটি মিনারের উচ্চতা ১৩০ মিটার।

মসজিদের প্রথম ও দ্বিতীয় তলায় শ্রেণিকক্ষ, একটি কনফারেন্স হলসহ অন্যান্য সুবিধা রয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে প্রতিবেদনে।

তাজিকিস্তান সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে আসা প্রজাতন্ত্রগুলোর মধ্যে এটিই একমাত্র দেশ, যেখানে ইসলাম ২০০৯ সালে রাষ্ট্রীয় ধর্মের মর্যাদা লাভ করেছে। স্থলবেষ্টিত দেশটির উত্তরে কিরগিজস্তান, উত্তর ও পশ্চিমে উজবেকিস্তান, পূর্বে গণচীন ও দক্ষিণে আফগানিস্তান। দেশের সর্ববৃহৎ শহর ও রাজধানী দুশানবে। দেশটির মোট আয়াতন ১ লাখ ৪৩ হাজার ১০০ বর্গকিলোমিটার।

১৯২৯ সালে এটি সোভিয়েত ইউনিয়নের অঙ্গ হয়ে যায়। ১৯৯১ সালের ৯ সেপ্টেম্বর ফের স্বাধীনতা লাভ করে। মার্কিন স্টেট ডিপার্টমেন্টের হিসাব মতে, দেশটির জনসংখ্যার ৯৮ শতাংশ মুসলমান, যাদের ৯৫ শতাংশ সুন্নি ও ৩ শতাংশ শিয়া। দেশটিতে কিছু সুফিবাদ চর্চাকারীও রয়েছে। সুন্নিদের অধিকাংশই হানাফি মাজহাবের অনুসারী।

নিউজটি শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন

All rights reserved © Jubokantho24.com