রবিবার, ০২ অক্টোবর ২০২২, ০৬:০৪ অপরাহ্ন

‘মাদরাসায় হিন্দু প্রিন্সপাল নিয়োগ ইসলাম অবমাননার শামিল’

যুবকণ্ঠ ডেস্ক:

টাঙ্গাইল দারুল উলূম কামিল মাদরাসায় হিন্দু ধর্মাবলম্বী বাংলা অধ্যাপককে ভারপ্রাপ্ত প্রিন্সপাল নিযুক্ত করায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন প্রধান আমীরে শরীয়ত আল্লামা আতাউল্লাহ হাফেজ্জী।

শুক্রবার (১৬ সেপ্টেম্বর) এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, বৃটিশ শাসনামলে কলকাতা আলিয়া মাদরাসায় পরপর ২৬ জন অমুসলিমকে প্রিন্সিপাল হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছিল। টাঙ্গাইলে ইসলাম ধর্মের শিক্ষা কেন্দ্র মাদরাসার প্রিন্সিপাল পদে একজন বিধর্মীকে নিয়োগ দিয়ে বৃটিশ শাসকদের অনুকরন করা হয়েছে। এটা ইসলাম অবমাননার শামিল।

আল্লামা আতাউল্লাহ হাফেজ্জী বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশ একটি স্বাধীন মুসলিম দেশ এবং শাসকরা ও মুসলমান। ৯২ ভাগ মুসলমানের বাংলাদেশে ইসলামী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে হিন্দু প্রিন্সিপাল কিছুতেই মেনে নেয়া যায়না। হিন্দু তো দুরের কথা সুযোগ্য আলেম ব্যাতিত মাদরাসার প্রন্সিপাল পদে কোন মুসলিম শিক্ষককেও নিয়োগ দেয়া উচিত হবে না। এটা ইসলাম ও মুসলমানদের সাথে চরম ধৃষ্টতা এবং কোরআন সুন্নাহর শিক্ষা ব্যবস্থার সাথে বেয়াদবির শামিল।

এ ধরনের ঘটনা ঘটিয়ে একটি কুচক্রী মহল মুুসলমানদের উস্কানী দিয়ে বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করার পায়তাড়া করছে কি না তা খতিয়ে দেখার জন্য সরকারের সংশ্লিস্ট মহলের প্রতি আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, অবিলম্ব এ ঘটনার সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। এব্যপারে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন তিনি।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি টাঙ্গাইল দারুল উলূম কামিল মাদরাসার হিন্দু ধর্মাবলম্বী সহকারী অধ্যাপক গোপাল চন্দ্র বসাককে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের দায়িত্ব দিলে দেশব্যাপী নিন্দার ঝড় উঠে। পরে গতকাল ১৫ সেপ্টেম্বর) মোঃ আনোয়ারুল হাবীবকে মাদরাসার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তিনি দীর্ঘদিন থেকে একই মাদরাসার সহকারী অধ্যাপকের দায়িত্ব পালন করেছেন।

মাদরাসার গভর্নিং বোর্ডের সভাপতি মো: আমির কুদরত-ই-এলাহি খান স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে সহকারী অধ্যাপক মোঃ আনোয়ারুল হাবীবকে নিয়োগের বিষয়টি জানানো হয়।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2019 LatestNews
Design & Developed BY ithostseba.com